৫ লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে করলেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ (ভিডিওসহ)


প্রকাশিত : মার্চ ২৩, ২০১৯ ||

মো. আসাদুজ্জামান সরদার: ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্রী মামাতো বোন সামিয়া পারভীনের সাথে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার ও কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ। শুক্রবার বেলা তিনটায় সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার হাদিপুরে এই বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠজনেরা। তবে মোস্তাফিজ সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা না বললেও তার বড় ভাই মাহফুজুর রহমান মিঠু মোস্তাফিজ-সামিয়া দম্পত্তির জন্য দেশবাসির কাছে দোয়া চেয়েছেন।

পারিবারিক সূত্র থেকে জানা যায়, কালিগঞ্জের তেতুলিয়া গ্রামের হাজী আবুল কাশেম-মাহমুদা দম্পত্তির ছোট ছেলে বিশ^খ্যাত ক্রিকেটার মোস্তাফিজুর রহমানের আপন মামাতো বোন সামিয়া পারভিন। দেবহাটার হাদিপুর গ্রামের রওনাকুল ইসলাম বাবুর ১ছেলে ও ৪ মেয়ের মধ্যে সামিয়া তৃতীয়।

 

তিনি ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিষয় নিয়ে ¯œাতক (সম্মান) ১ম বর্ষে লেখাপড়া করছেন। বেলা পৌনে তিনটার দিকে বাবা-মা-ভাই ও বন্ধু-বান্ধবসহ ৩০-৩২ জন বরযাত্রী নিয়ে হাদিপুরে কনের বাড়িতে আসেন মোস্তাফিজ। শেরওয়ানী পরা থাকলেও পাগড়ি পরেননি মোস্তাফিজ। তাকে কোলে করে বিয়ের আসরে নিয়ে যেতে চাইলেও তিনি কোলে উঠতে অস্বীকৃতি জানান। একপর্যায়ে পায়ে হেটেই বিয়ের মঞ্চে বসেন তিনি। এসময় নওয়াপাড়া ইউনিয়নের নিকাহ্ রেজিস্ট্রার আবুল বাশার ৫ লাখ ১ টাকা দেনমোহরে মোস্তাফিজ ও সামিয়ার বিয়ে রেজিস্ট্রি করেন। মোস্তাফিজের বড় ভাই মাহফুজার রহমান মিঠু মোস্তাফিজ-সামিয়া দম্পত্তির জন্য দেশবাসির কাছে দোয়া চেয়ে বলেন, নিউজিল্যান্ডের ওই ঘটনার পর বাড়িতে এসেও ওর মনটা অনেক খারাপ ছিলো। সে কারণে আমার বাড়ি থেকে বিয়ের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি। মায়ের পছন্দেই এ বিয়ে। মোস্তাফিজের আপাতত আক্দ হচ্ছে। আগামী বিশ্বকাপের পর বড় আয়োজনের ইচ্ছে আছে। তখন সবাইকে বলে ঘটা করে অনুষ্ঠান করা হবে। দুই পরিবারের সিদ্ধান্ত আপাতত কনের ছবি আমার গণমাধ্যমে প্রকাশ করছি না।