শ্যামনগরে সরকারের নায্যমূল্যের চাল আত্মসাতের অভিযোগ ডিলারের বিরুদ্ধে


প্রকাশিত : এপ্রিল ৩, ২০১৯ ||

শ্যামনগর (সদর) প্রতিনিধি: শ্যামনগর উপজেলায় গাবুরা ইউনিয়নে অসহায় ও গবীরদের জন্য সরকারের বরাদ্দকৃত নায্যমূল্যে চাল আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে ডিলারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই ইউনিয়নের চাঁদনীমুখা গ্রামে শহর আলী গাজীর ছেলে মো. মাছুম গাজী এবং একই গ্রামের মোকছেদ সরকারের ছেলে ফারুক সরকার ও মহাতাব সরকারের ছেলে মনিরুল ইসলাম বিষয়টির তদন্তপূর্বক প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ জানিয়েছে।
অভিযোগ সূত্র মতে, গাবুরা ইউনিয়নের প্রয়াত চেয়ারম্যান জিএম আলী আযম টিটো তৎকালীন সময়ে নায্যমূল্যোর চাল পাওয়ার জন্য প্রকৃত অসহায়দের নামের তালিকা করেন এবং সে মতে বেশ কিছুদিন যাবৎ চাল পেতে থাকে উপকারভোগীরা। ইতোমধ্যে জিএম আলী আযম মারা যাওয়ার পরে হঠাৎ সংশ্লিষ্ট ডিলার আলমগীর হোসেন কৌশলে উপকার ভোগীদের কাছ থেকে চাল দেওয়ার কার্ডগুলো হাতিয়ে নেয়। আমরা চাল চাইলে তালবাহানা শুরু করে এবং তালিকায় নাম নেই বলে জানিয়ে দেয়। অভিযোগে আরো জানা যায়, চাঁদনীমুখা বাজারে দোকান থেকে চাল সরবরাহ করার কথা থাকলেও বেআইনীভাবে ডিলার আলমগীর হোসেন নিজ বাড়িতে রেখে চাল সরবরাহ করে যাচ্ছে। এতে অনেক সুবিধাভোগী বঞ্চিত হচ্ছে। তাছাড়া ডিলার আলমগীর হোসেন নিজ নামে এবং ভাইদের নামে নায্যমূল্যে চাল প্রাপ্তির কার্ড করেছে যেটা সম্পুর্ণ বে-আইনি। উল্লেখ্য ১শত বিঘা জমি মালিকদেরও নায্যমূল্যের চাল সরবরাহ করা হচ্ছে। এ বিষয়ে ডিলার আলমগীর হোসেন যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেন। শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তাকে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।