আইনগত সহায়তা প্রদানে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে: জেলা জজ শেখ মফিজ


প্রকাশিত : এপ্রিল ৫, ২০১৯ ||

বদিউজ্জামান: জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির মাধ্যমে সমাজে আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল মানুষ সরকারি খরচে মামলা পরিচালনা করার সুযোগ পেতে পারে সে ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। বেশির ভাগ বিচারপ্রার্থী সাধারণ মানুষের মধ্যে এ ব্যাপারে কোন ধারণাই নেই। এজন্য প্রয়োজনে গ্রাম পর্যায়ে চেয়ারম্যান মেম্বারদের নিয়ে ঘন ঘন বৈঠকের মাধ্যমে সকলকে সচেতন করতে হবে। এটা নিঃসন্দেহে সরকারের একটা জনকল্যাণমূখী কর্মসূচী। এ কর্মসূচীর সফল বাস্তবায়নের জন্য বিচারক ও আইনজীবীদের সাথে সাতক্ষীরার সিভিল সোসাইটি এবং এনজিওসহ সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা দরকার। বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় জেলা ও দায়রা জজের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে সাতক্ষীরার নবাগত জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান উপরোক্ত কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, আমি ইতোপূর্বেও একবার সাতক্ষীরাতে চাকরী করেছি, সাতক্ষীরার মাটি ও মানুষ আমার আনেক পরিচিত, আমি চাই এখানকার সাধারণ মানুষ যেন ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত না হয়। তিনি এ ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন এবং আগামী ২৮ এপ্রিল জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবসটি সফল ভাবে উদযাপনের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত থেকে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তফা পাভেল রায়হান, আতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. বদিউজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেরিনা আক্তার, জেলা আইনজীবী সমিতির নব নির্বাচিত সভাপতি এম শাহ আলম, সাধারণ সম্পাদক তোজাম্মেল হোসেন তোজাম, সাবেক সভাপতি আবুল হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আ ক ম রেজওয়ান উল্যাহ সবুজ, জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার সালমা আক্তার প্রমূখ। এছাড়া সভায় জেলা জজশীপ ও ম্যাজিট্রেসির বিচারকগণও উপস্থিত ছিলেন। সবশেষে জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান এবং জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানের সম্মতিক্রমে আগামী ২৮ এপ্রিল জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উদযাপন উপলক্ষে একটি কমিটি গঠন করা হয়। সমগ্র অনুষ্ঠাটি পরিচালনা করেন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াছমিন নাহার।