দেবহাটার বিল শিমুলবাড়িয়া এলাকায় ঘের দখলের চেষ্টা, ঘের মালিকসহ আহত ৭


প্রকাশিত : এপ্রিল ৬, ২০১৯ ||

দেবহাটা সংবাদদাতা: ঘের দখলের চেষ্টা ও অবৈধভাবে ঘর নির্মাণ কাজে বাঁধা দেওয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় ঘের মালিক লিয়াকত, রিয়াছাদসহ কমপক্ষে ৭ জন আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহষ্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে দেবহাটা উপজেলার বিল শিমুলবাড়িয়া এলাকায়। এঘটনায় আহতদের সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করেছে স্থানীয়রা। রাতেই দেবহাটা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে হামলাকারী ২জনকে আটক করেছে।
সূত্র জানায়, সহিংসতাসহ একাধিক মামলার আসামী জামায়াত নেতা কওছারের নেতৃত্বে জাহিদুলসহ ১৫/২০ জন লাঠিয়াল বাহিনী দা ও বল্লভ নিয়ে বৃহষ্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিলশিমুলবাড়িয়া এলাকার লিয়াকত সরদার ও রওশনারার মালিকানাধীন ঘের দখল করতে যায়। এসময় ঘের মালিক লিয়াকত সরদার বাঁধা দিলে তাকে বেধড়ক মারপিট করে সন্ত্রাসীরা। এসময় শিমুলবাড়িয়া গ্রামের মৃত আব্দুস সবুর সরদারের ছেলে মোঃ রিয়াছাদ সরদার, একই গ্রামের শামিম ও মাহবুব দখল কাজে বাঁধা দিলে তাদেরকেও দা, লাঠি ও বল্লভ দিয়ে আঘাত করে কওছার বাহিনী ।
এসময় তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে এলে তাদের ধাওয়ায় লাঠিয়াল বাহিনী পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত ঘের মালিকসহ ৪ জনকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে ও অন্যদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা করে। খবর পেয়ে রাতেই দেবহাটা থানার এস আই মোস্তাফিজুর ঘটনাস্থল থেকে কওছার বাহিনীর দুইজনকে আটক করেছে।
এ মামলায় গ্রেপ্তারকৃত পুষ্পকাটি গ্রামের কওছার আলীর পুত্র জাহিদুল এবং ভাগনে একই এলাকার মঞ্জুরের পুত্র সোহাগ (২৬) কে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এ বিষয়ে দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার সাহা জানান, এঘটনায় থানায় এজাহারভুক্ত দুইজনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যহত রয়েছে।
এঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার সুলতানপুর এলাকার ঘের মালিক রওশন আরা বাদি হয়ে দেবহাটা থানায় কুলিয়া পুষ্পকাটি গ্রামের কেয়ামদ্দীনের পুত্র কওছার আলীকে প্রধান ও মোকছেদ আলীকে হুকুম দাতা আসামীসহ ৮জনের নাম উল্লেখ এবং ২০/৩০জনকে অজ্ঞাত আসামী করে ১৪৩/ ৪৪৭/ ৪৪৮/ ৩২৩/ ৩২৪/ ৩২৫/ ৩২৬/ ৩০৭/ ৩৮০/ ৪২৭/ ৫০৬/ ১১৪ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-০৪, তাং- ০৫/০৪/২০১৯ ইং।