কলারোয়া পৌরসদরের ১৫টি পরিবার বিদ্যুৎ বঞ্চিত!


প্রকাশিত : মে ২০, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিদ্যুতের দুই খুঁটির (পিলার) মধ্যবর্তী স্থানে বসবাস করায় বিদ্যুৎ সংযোগ থেকে বঞ্চিত কলারোয়া পৌরসভাধীন ১নং ওয়ার্ডের তুলশীডাঙ্গার কানিপাড়া ও পার্শ্ববর্তী পৌরসভা লাগোয়া উপজেলার লোহাকুড়া গ্রামের ১৫টি পরিবার। যদিও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কর্মকর্তাদের পরামর্শে নির্ধারিত ফি দিয়ে বিদ্যুতের খুটির (পিলার) জন্য আবেদন করা হয়। তবে আবেদনের প্রায় এক মাস অতিবাহিত হলেও বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ গ্রহন না নেয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছে বিদ্যুৎ বঞ্চিত পরিবারগুলো।
কলারোয়া পৌরসদরের তুলশীডাঙ্গা এলাকার শহিদুল ইসলাম, সাজু, মতিয়ার, লোহাকুড়া গ্রামের হাসান, মোশারফসহ অনেকে জানান, পৌরসদরের বাসিন্দা হয়েও তারা (১৫টি পরিবার) পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। বিষয়টি একাধিকবার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের জানানো হলেও তারা কোন ব্যবস্থা নিতে পারেনি। পরবর্তীতে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরামর্শে গত ২৪ এপ্রিল দুইটি সাব খুটির (পিলার) জন্য নির্ধারিত ফি দিয়ে স্থানীয়দের পক্ষে আবেদন করেন শহিদুল ইসলাম ও মোশারফ সরদার। তারা জানান, আবেদন করার এতদিন পরেও সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কোন কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে আসেননি বরং ঝাউডাঙ্গা জোনাল অফিসের কর্মকর্তারা আবেদনের বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে তাদেরকে জানিয়েছেন।
কলারোয়া পৌরসদরের বাসিন্দা হয়েও বিদ্যুৎ বঞ্চিত তুলশীডাঙ্গা এলাকার ৬টি ও লোহাকুড়া গ্রামের ৯টি পরিবার তাদের আবেদনকৃত বিদ্যুতের খুটি ও বিদ্যুৎ সংযোগের দাবি জানিয়ে বলেন, বর্তমান সরকার দেশের প্রত্যন্ত এলাকায় ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো পৌঁছে দিচ্ছে। অথচ পৌরসদরে বাসিন্দা হয়েও আমরা বিদ্যুতের সংযোগ পাচ্ছি না। বঞ্চিত এসব পরিবারের সদস্যরা বিদ্যুৎ সংযোগ পেতে অবিলম্বে স্থানীয় সংসদ সদস্য, কলারোয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উর্দ্ধতন কর্তপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
বিদ্যুতের খুটির (পিলার) আবেদনের বিষয়টি নিশ্চিত করে সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির (কলারোয়া সাব জোনাল অফিস) এজিএম আবু বকর সিদ্দিকী জানান, আমরা আবেদনপত্র জোনাল অফিসের মাধ্যমে সমিতির প্রধান কার্যালয়ে (পাটকেলঘাটা) পাঠিয়ে দিয়েছি। পরবর্তী কাজ সেখান থেকে করবে।