নলতা শরীফে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ইফতার প্রদান


প্রকাশিত : May 21, 2019 ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিগত বছরের ন্যায় নলতা শরীফে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও পীরে কামেল সুলতানুল আউলিয়া কুতুবুল আকতাব গওছে জামান আরেফ বিল্লাহ হজরত শাহছুফী খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা (র.) কর্তৃক ‘¯্রস্টার এবাদত ও সৃস্টের সেবা’ এ ব্রত নিয়ে প্রতিষ্ঠিত নলতা কেন্দ্রীয় আহ্ছানিয়া মিশনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ও পাক রওজা শরীফের শ্রদ্ধেয় খাদেম মৌলভী আনছার উদ্দীন আহমদ’র বিশেষ তত্ত্বাবধানে পবিত্র মাহে রমজানের ১ম দিন থেকে অদ্যাবধি দেশের সর্ববৃহৎ ইফতার মাহফিল অব্যাহত আছে। ১৩ রমজান রবিবার উক্ত ইফতার মাহফিলে ইফতারদাতা হিসেবে অংশগ্রহণ করে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লি. নলতা শাখা। উপস্থিত ছিলেন পাক রওজা শরীফের খাদেম আনছার উদ্দীন আহমদ, মিশন কর্মকর্তা ড. কাজী আলী আযম, সাইদুর রহমান, ব্যাংকের খুলনা বিভাগীয় প্রধান আব্দুর রশিদ, নলতা শাখা ব্যবস্থাপক জিএম মাসুম, কালিগঞ্জ শাখা ব্যবস্থাপক রাশিদুল ইসলাম, শ্যামনগর শাখা ব্যবস্থাপক আসাদুজ্জামান গোলদার, সাতক্ষীরা শাখা ব্যবস্থাপক আবু সউদ রানা হাওলাদার, কলারোয়া শাখা ব্যবস্থাপক মনিরুল ইসলাম, নলতা শাখার মোখলেছুর রহমান, সাইফুদ্দিন আল-মামুনসহ উক্ত ব্যাংকের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মিঠু খান, আনিছুজ্জামান খোকন, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তোফায়েল আহমেদ, প্রভাষক মনিরুজ্জামান মহসিন, আবুল ফজল, আনোয়ারুল হক, হাফেজ হাবিবুর রহমান, হাফেজ আশিকুর রহমান, রফিকুল ইসলাম, বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ এবং স্থানীয়সহ জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আগত হাজার হাজার রোযাদার। ইফতারকালীন সময়ে নলতা শরীফ পরিণত হয় রোযাদারদের মিলন মেলায়। সর্বত্র বিরাজ করতে থাকে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য পরিবেশ। বিভিন্ন রোযায় উপস্থিত হন স্থানীয় সংসদ সদস্য সহ অন্যান্য সংসদ সদস্যবৃন্দ ও সরকারি-বেসরকারি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ। মিশন থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, প্রতিদিন ইফতার মাহফিলে ব্যয় হচ্ছে প্রায় ২লক্ষ ৮০হাজার টাকা। ইফতার সামগ্রীর মধ্যে আছে চিড়া, ছোলা, কলা, ডিম, খেঁজুর, সিঙ্গাড়া, ফিরনি ও ক্ষেত্রবিশেষ খিরাই বা ভিন্ন ভিন্ন আইটেম। প্রতিদিন প্রায় ১০ হাজার রোযাদারের জন্য ইফতারের প্লেট প্রস্তুত করা হচ্ছে। যার মধ্যে পাক রওজা শরীফ প্রাঙ্গণে ইফতার মাঠের জন্য ৫/৬ হাজার এবং অবশিষ্ট পূর্বনির্ধারিত বিভিন্ন মসজিদে প্রেরিত হয়ে থাকে। রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে সুন্দর পরিবেশে ইফতার করার জন্য মিশন কর্তৃপক্ষ লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয়ে চারিদিকে বাঁশের রেলিং ও উপরে টিনের ছাউনির ব্যবস্থা করেছে। মাসব্যাপী ইফতার সামগ্রী তৈরী করার জন্য রন্ধনশালা, বিনামূল্যে যানবাহন গ্যারেজ, জুতা রাখার স্থান এবং ইফতার পরিবেশন ও ইফতার পরবর্তী গোছানোর জন্য স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করছে অসংখ্য নারী-পুরুষ। আর এসবের তদারকিতে আছেন কেন্দ্রীয় আহ্ছানিয়া মিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। ১৩ রমযান উক্ত ইফতার মাহফিলে পবিত্র কোরআন ও হাদিসের আলোকে আলোচনা পরবর্তী দোয়া পরিচালনা করেন নলতা শরীফ শাহী জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাও. আশরাফুল ইসলাম আজিজি।