আশাশুনি উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম আর নেই: শোক


প্রকাশিত : মে ২২, ২০১৯ ||

আশাশুনি ব্যুরো: আশাশুনি উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি ও কুল্যা ইউনিয়ন পরিষদের চার বারের নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান এসএম রফিকুল ইসলাম সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে টানা ৭ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে না ফেরার দেশে চলে গেছেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। মঙ্গলবার বিকাল ৪.৪৯ মিনিটে তিনি ঢাকা ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫২ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ পুত্র ও ২ কন্যা রেখে গেছেন।
প্রসঙ্গত: ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম গত ১৪ মে শ্যামনগরে এক রাজনৈতিক সহকর্মী আব্দুল অহেদের স্ত্রীর জানাযা নামাজ শেষে পরদিন ১৫ মে সকালে বাড়ী ফেরার পথে চাম্পাফুল-কালিবাড়ী দীঘিরপাড়ে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন। ওইদিনই তাকে সাতক্ষীরা ফারজানা ক্লিনিকে ভর্তি করে অস্ত্রপচার সম্পন্ন করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে সাতক্ষীরার সি.বি হাসপাতালে আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানেও শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় গত শুক্রবার (১৭ মে) রাতে আইসিইউ এ্যাম্বুলেন্স যোগে তাকে ঢাকায় ইবনেসিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। টানা ৭ দিন এমনিভাবে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে না ফেরার দেশে চলে গেছেন।
এদিকে জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আশাশুনি উপজেলা শাখার দীর্ঘদিনের সভাপতি কুল্যা ইউনিয়ন পরিষদের চার চারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান এসএম রফিকুল ইসলামের মৃত্যুতে শোক ও সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন, কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম মঞ্জু, বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক সাবেক এমপি হাবিবুল ইসলাম হাবিব, কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, কেন্দ্রীয় সদস্য যথাক্রমে কাজী আলাউদ্দিন, ডা. শহীদুল আলম, সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির আহবায়ক রাহমাতউল্লাহ পলাশ, যুগ্ম-আহবায়ক বৃন্দ যথাক্রমে কামরুল ইসলাম ফারুক, এড. সৈয়েদ ইফতেখার আলী, আব্দুল আলিম চেয়ারম্যান, আব্দুর রউফ চেয়ারম্যান, তারিকুল হাসান, এম এ জলিল সহ জেলা বিএনপি নেতা হাবিবুর রহমান হবি, অধ্যাপক মোদাচ্ছেরুল হক হুদা, সিরাজুল ইসলাম বাবু, শের আলী, তাজকিন আহমেদ চিশতী, এড. বরুণ বিশ^াস, এড. আবুল হোসেন, এড. তোজাম্মেল হোসেন, আবু জাহিদ ডাবলু, আব্দুস সামাদ, মাছুম বিল্লাহ শাহীন, আবুল হাসান হাদী,সোহেল আহমেদ মানিক, এড. কামরুজ্জামান ভুট্ট, এড. এখলেছার আলী বাচ্চু, রফিকুল আলম বাবু, আইনুল ইসলাম নান্টা, ইউসুফ আলী,আসিফুর রহমান তুহিন, হাসান শাহারিয়ার রিপন, এড. এবিএম সেলিম, আনারুল ইসলাম, এস এম আকবর হোসেন, আব্দুর রাজ্জাক শিকদার,এড. আকবর আলী, কাজী কবির আহমেদ, হোসনেয়ারা আহমেদ, ফরিদা আক্তার বিউটি, হাফিজুর রহমান মুকুল, আলী শাহীন, সানাউল্লাহ সানা, শফিকুল আলম বাবু কাউন্সিলর, আব্দুল মুজিদ চেয়ারম্যান, লুৎফর চেয়ারম্যান, সমুন রহমান, শাহাজান মেম্বর প্রমুখ।
নেতৃবৃন্দ শোকবার্তায় বলেন, রফিক চেয়ারম্যানের অকাল প্রয়াণ আশাশুনি উপজেলাসহ সাতক্ষীরা অঞ্চলের জাতীয়বাদী রাজনীতির অপূরণীয় ক্ষতি হল, যা সহজে পূরণ হওয়ার নয়। তার মত একজন দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদের শূন্যস্থান পূরণ হওয়া বিএনপির রাজনীতিতে দুরূহ ব্যাপার বলে আমরা মনে করি। রফিক চেয়ারম্যানের অপ্রত্যাশিত মৃত্যুতে আমরা শোকাহত, মর্মাহত। আমরা মরহুম রফিক চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের সমবেদনা জানিয়ে মরহুম রফিকের রুহের মাগফেরাত কামনা করছি।
তার মৃত্যুতে অনুরূপভাবে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন আশাশুনি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিমসহ সকল ইউপি চেয়ারম্যান এবং উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান রুহুল কুদ্দুস, সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল আহসানসহ উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের নেতৃবন্দ।
এদিকে এসএম রফিকুল ইসলাম চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে জেলা যুবদলের শোক প্রকাশ করেছে। মরহুমের আত্মার মাগফিরাত ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন, জেলা যুবদলের সভাপতি আবু জাহিদ ডাবলু, সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান মুকুল ও মো. নজরুল ইসলাম, আলী শাহীন, হাসান শাহরিয়া রিপনসহ সাতক্ষীরা জেলা, থানা, পৌর যুবদলের সকল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।