বড় বন্ধুদের ঈদ উপহার পেল ছোট বন্ধুরা


প্রকাশিত : জুন ২, ২০১৯ ||

পত্রদূত ডেস্ক: প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ‘আমরা বন্ধু’ সংগঠনের পক্ষ থেকে শিশু-কিশোরদের মাঝে ঈদের নতুন পোশাক উপহার দেওয়া হয়েছে। শনিবার সকাল ১০টায় সাতক্ষীরা সদরের শহিদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কের শহিদ মিনার চত্তরে এই পোশাক উপহার দেওয়া হয়।
এ বছর ১১৫ জন শিশু-কিশোরের মাঝে ঈদের নতুন পোশাক তুলে দেন বড় বন্ধুরা। তাদের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগ করে নিতেই এই আয়োজন। নিজেদের জমানো টাকা দিয়েই ঈদের নতুন পোশাক কেনা হয়েছে বলে জানালেন আমরা বন্ধুর উদ্যোক্তা এস এম নাহিদ হাসান।
ঈদের নতুন পোশাক পেয়ে শিশু-কিশোররা আনন্দে উচ্ছস্বিত। এদিকে শিশু-কিশোরদের মাঝে নতুন পোশাক তুলে দিতে পেরে বড় বন্ধুরাও তৃপ্ত। তাদের আনন্দ দেখে বড় বন্ধুরাও আনন্দিত।
ঈদের নতুন পোশাক পেয়ে সাতক্ষীরা সদরের কামালনগর এলাকার ছোটবন্ধু ইমন হোসেন অনুভূতি ব্যক্ত করে বলে, ‘বড়বন্ধুদের কাছ থেকে ঈদে নতুন পোশাক পেয়ে খুব ভাল লাগছে। ঈদের দিন বন্ধুদের দেওয়া এ জামা প্যান্ট পরে ঈদের নামাজ পড়তে যাবো। বন্ধুদের সাথে আনন্দ করবো।’ সদরের বদ্দিপুর এলাকার জাকিয়া বলে, ‘স্কুলের বড় ভাইয়া আমাদের এখানে নিয়ে এসেছে। বড়বন্ধুদের দেওয়া জামাটা খুবই পছন্দ হয়েছে। বন্ধুরা ঈদের জামা দেওয়ায় আমি খুবই খুশি হয়েছি।’
এ ব্যাপারে আমরা বন্ধুর সদস্য শারমিন নাহার বলেন, ‘ঈদ মানে আনন্দ। আর ঈদের আনন্দ সবচেয়ে শিশুদের মধ্য বেশি থাকে। তাই তাদের আনন্দ বাড়িয়ে দিতে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। এ বছর ১১৫ ছোটবন্ধুকে ঈদের নতুন পোশাক উপহার দিয়েছি। আগামীতেও এ ধারা অব্যাহত রাখতে চাই।
উল্লেখ্য, বড় বন্ধু খ্যাত আমরা বন্ধুরা প্রায়ই নিজেদের জমানো টাকা দিয়ে সদরের বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রতিমাসে খাতা-কলম উপহার দিয়ে আসছে। এরই মাঝে এসব ছোট শিশু-কিশোরদের আপন করে নিতে তাদের নাম দিয়েছে ছোট বন্ধু। আর এই ছোট বন্ধুদের পাশে যে কোন সমস্যায় দাঁড়াতে তারা বদ্ধপরিকর। প্রসঙ্গত, সংগঠনটি নিজেদের দেওয়া আর্থিক অনুদানে ২০১৫ সালে ১৩জন, ২০১৬ সালে ৩২জন, ২০১৭ সালে ২৯ জন এবং ২০১৮ সালে ৫৪ শিশু-কিশোরকে ঈদের নতুন পোশাক প্রদান করে।