কলারোয়ায় বৈদ্যুতিক খুঁটির মেইন তার নিচু হয়ে হাতের নাগালে, দূর্ভোগ-দূর্ঘটনার শংকা


প্রকাশিত : জুন ১০, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: বৈদ্যুতিক খুঁটির মেইন তার নিচু হয়ে হাতের নাগালে চলে আসায় ভোগান্তিতে পড়ছেন স্থানীয়রা। প্রতিনিয়ত নানান দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের। সামান্যতম অসাবধানতা বা ভুলে যেকোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরণের দূর্ঘটনাও। এমন দৃশ্য চোখে পড়েছে উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের খোরদো বাজারে এবং সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের একটি ইটের ভাটা এলাকায়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন খোরদো বাজারের রাজগঞ্জমুখি চাকলা ব্রিজের সংযোগ সড়কটি উচু করে নির্মাণ করায় রাস্তার পাশের আগের স্থাপনকৃত বৈদ্যুতিক খুঁটিগুলো নিচু হয়ে গেছে। স্বাভাভিকভাবেই সেইসকল খুঁটির মেইন তারও নিচু হয়ে হাতের নাগালে চলে এসেছে। ওই রাস্তা দিয়ে নিয়মিত বাস, ট্রাকসহ অন্যান্য যানবাহন চলাচল করে থাকে। পণ্যবাহী ট্রাকের উপরি অংশ প্রায়ই ওই তারে বাধাগ্রস্থ হয় বা বেধে যায়। এমনকি এ রাস্তাটি উচু হয়ে যাওয়ায় পাশের দোকান, ঘরসহ বিভিন্ন স্থাপনা নিচু হয়ে আন্ডারগ্রাউন্ডের স্থাপনায় রূপ নিয়েছে। রাস্তার উপর ঝুলন্ত বৈদ্যুতিক তারে ভোগান্তি আর দূর্ভোগের পাশাপাশি বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা। দীর্ঘদিন এমন দৃশ্য দেখা গেলেও খুঁটি পুন:স্থাপন করে তার উচুতে রাখার কোন উদ্যোগ নিতে দেখা যায়নি সংশ্লিষ্ট বিদ্যুত কর্তৃপক্ষের। দুর্ভোগে পড়া বিভিন্ন যানবাহনে পড়া ট্রাক-বাসের ড্রাইভার ও স্থানীয়রা আক্ষেপে অসন্তোষ প্রকাশ করেন।
অনুরূপদৃশ্য চোখে পড়েছে উপজেলার সোনাবাড়িয়ায় কলারোয়া থেকে চন্দনপুর সড়কের পাশের একটি ইটভাটায়। সেখানে থাকা মেইন বৈদ্যুতিক খুঁটির চারধারে ভাটার মাটি পাহাড়সম স্তুপ করে রাখায় খুঁটির উপরিভাগেরর মেইন তার হাতের নাগালে পাচ্ছেন যে কেউ। সেটা এখন ছুঁইছুই অবস্থা। রাস্তার ধার দিয়ে যাওয়া বিদ্যুতের মেইন খুটির তার পর্যন্ত প্রায় ছুয়েছে মাটির পাহাড়। দৃশ্য দেখলে যে কেউ শিউরে উঠবে! তারের নিচে খুঁটির সাথে রক্ষিত ট্রান্সমিটার পর্যন্ত হাত দেয় যায়। এর আগে সেখানে একাধিকবার বিদ্যুৎস্পৃষ্টসহ দূর্ঘটনা ঘটলেও আজো পর্যন্ত বিষয়টি নিরসন না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীরা। অবিলম্বে এসকল সমস্যা সমাধানে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় ও ভূক্তভোগিরা।