শ্যামনগরে গলায় রশি দিয়ে ছাত্রীর আতœহত্যা


প্রকাশিত : জুন ১৩, ২০১৯ ||

মুন্সিগঞ্জ (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: শ্যামনগরে গলায় রশি দিয়ে খাদিজা খাতুন (১৩) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। গতকাল বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে শ্রীফলকাটি গ্রামে নিজ গৃহে গলায় রশি দিয়ে সে আত্মহত্যা করে। খাদিজা ওই গ্রামে নজরুল ইসলাম গাজীর কন্যা ও স্থানীয় শ্রীফলকাটি ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসার ৭ম শ্রেণির ছাত্রী।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তাসলিমার মা গত তিন বছর আগে ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করে। তার পিতা নজরুল গাজী পরবর্তীতে দ্বিতীয় বিয়ে করে। তার সৎ মা বিভিন্ন সময় তাকে নির্যাতন করে থাকে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়। তারিই ধারাবাহিকতায় তাসলিমা খাতুনকে তাড়াতাড়ি বিয়ে দেওয়ার জন্য তার পরিবার থেকে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে। একপর্যায়ে তার পরিবার থেকে চাপ ও নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে নিজে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়। আত্মহত্যার পূর্বে যে ঘরে আত্মহত্যা করে সেই ঘরের দেয়ালের গায়ে তাসলিমা নিজে হাতে লিখে ‘আমার বাবা-মা খারাপ’ ‘আমার বাবা-মা আমাকে অনেক কষ্ট দিয়েছে তাই আমি জীবন দিয়েছি।’ তার আত্মহত্যার জন্য পিতা-মাতাকে দায়ী করে।
তার পিতা জানায়, খাদিজা মানসিক রোগী ছিল। ঘটনার সময় বাড়িতে অন্য কেহ না থাকার সুযোগে সে নিজ গৃহে আড়ার সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে। শ্যামনগর থানার ওসি হাবিল হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক রোকন মিয়া ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে মৃত্যুর সঠিক কারন নির্নয়ের জন্য সাতক্ষীরা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।