দেবহাটায় জামায়ত-শিবিরের মদদদাতা মিঠু’র গ্রেপ্তারের দাবীতে মানববন্ধন


প্রকাশিত : June 18, 2019 ||

দেবহাটা ব্যুরো: দেবহাটার জামায়ত শিবিরের অন্যতম মদদদাতা বহুল আলোচিত রোকনুজ্জামান মিঠুর গ্রেপ্তারের দাবীতে মানববন্ধন করেছে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারসহ উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। সোমবার সকাল ১০টায় দেবহাটা উপজেলার সখিপুর ব্রীজ সংলঘœ জেলা কাঁকড়া ব্যবসায়ী সমিতির প্রধান কার্যালয়ের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসুচীটি পালিত হয়। আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও দেবহাটাবাসীর ব্যানারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসুচী থেকে সহিংসতাকালীন ও পরবর্তী সময়ে দেবহাটার জামায়ত-শিবিরের অন্যতম মদদদাতা ও আশ্রয়দাতা রোকনুজ্জামান মিঠুকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবী জানানো হয়। আলোচিত রোকনুজ্জামান মিঠু উপজেলার সখিপুর ধোপাডাঙ্গা গ্রামের মৃত আবু সাইদের ছেলে এবং দেবহাটার সর্বোচ্চ সহিংস জামায়ত নেতা জিয়াউর রহমান ওরফে আফগান জিয়ার দুলাভাই। মানববন্ধনে বক্তৃতাকালে সাতক্ষীরা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি আবু রাহান তিতু বলেন, ইতোপুর্বে রোকনুজ্জামান মিঠুর বাড়িতে একাধিকবার অভিযান চালিয়েও সে পলাতক থাকায় তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি যৌথবাহিনী। সহিংসতাকালীন মসজিদ থেকে নামাজ শেষে জামায়ত-শিবিরের সহিংস মিছিল বের করে এলাকায় তান্ডব চালাতো রোকনুজ্জামান মিঠু। সেসময় তারই বাড়ীর পাশে দেবহাটার আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল আজিজকে নৃশংসভাবে হাত-পায়ের রগ কেটে হত্যা করেছিলো জামায়ত-শিবিরের সহিংস ক্যাডাররা। ২০১৩ সালে এলাকায় সহিংসতায় নেতৃত্ব দিয়ে বিগত কয়েক বছর ধরে আত্মগোপনে থাকার পর এলাকায় ফিরে এসে স¤প্রতি ধোপাডাঙ্গা সরদার বাড়ি জামে মসজিদে জামায়ত শিবিরের অবৈধ কর্মকান্ড পরিচালনা করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে রোকনুজ্জামান মিঠুসহ রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত তারই নেতৃত্বাধীন একটি চক্র। এঘটনায় মসজিদ কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ সাধারণ মুসল্লীরা ক্ষুদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ করলে মসজিদের মধ্যেই মুসল্লীদেরকে ২০১৩ সালের সহিংস ঘটনার কথা মনে করিয়ে হুমকি দেয় রোকনুজ্জামান মিঠু। এসকল বিষয় নিয়ে সাতক্ষীরা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি ও ধোপাডাঙ্গা সরদার বাড়ি জামে মসজিদের সভাপতি আবু রাহান তিতু এবং সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ মুসাজী লিটন বাদী হয়ে গত মঙ্গলবার জামায়ত শিবিরের মদদদাতা রোকনুজ্জামান মিঠু, তার ছেলে আব্দুস সামাদ, রোকনুজ্জামান, নুরুল ইসলাম, নুর মোহাম্মাদ, মৃত আত্তাব সরদাদের ছেলে আব্দুল লতিফ, নুরুল ইসলামের ছেলে মেহেদী, আব্দুর রাজ্জাক সরদারের ছেলে আইয়ুব আলী ও নুর আলী সরদারের ছেলে বাবলুর বিরুদ্ধে আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী জানিয়ে দেবহাটা থানায় এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও অদ্যবধি তাদেরকে গ্রেপ্তার না করায় সোমবার সকালে মানববন্ধন কর্মসুচীটি পালিত হয়। পাশাপাশি অবিলম্বে তাদেরকে গ্রেপ্তার না করা হলে আরো কঠোর কর্মসুচীর ঘোষণা দেয়া হবে বলেও মানবন্ধনে বলা হয়।