জেলায় সুপেয় পানি এবং দূর্যোগে পয়:নিস্কাশনের জন্য রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে বিশেষ প্রকল্প গ্রহণ ও অর্থ বরাদ্দের দাবীতে মানববন্ধন


প্রকাশিত : জুন ২৭, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: জেলায় সুপেয় পানি এবং দূর্যোগে পয়:নিস্কাশন ব্যবস্থা পুনর্বাসনের জন্য রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে বিশেষ প্রকল্প গ্রহন ও অর্থ বরাদ্দের দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারক লিপি প্রদান করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় পানি কমিটির আয়োজনে ও বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা উত্তরনের সহযোগিতায় বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসুচি পালিত হয়।
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় পানি কমিটির সভাপতি এবিএম শফিকুল ইসলাম, ওয়াশ এ্যালায়েন্স বাংলাদেশের কান্ট্রিডিরেক্টর অলোক মুখার্জী, মুক্তিযোদ্ধা মইনুল ইসলাম, উত্তরনের প্রকল্প সমন্বয়কারী হাসিনা পরভিন, মীর জিল্লুর রহমান প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমের উপকুলীয় অঞ্চল তথা সাতক্ষীরা, খুলনা ও বাগেরহাট জেলা দুর্যোগপ্রবন অতিঝুকিপূর্ণ জেলা। এ অঞ্চলের অন্যতম প্রধান সমস্যা সুপেয় পানির সংকট এবং প্রায় ৫০ লক্ষ অধিবাসী এ সমস্যা দ্বারা আক্রান্ত। ক্রমেই এ সমস্যা তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। যার কারনে জীবন-জীবিকা ও বসবাসে মারাত্মক ধরণের সংকট সৃষ্টি হচ্ছে। সুপেয় পানি সংকটের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরণের দুর্যোগকালীন সময়ে ও পরবর্তী সময়ে এ এলাকার স্যানিটেশন ব্যবস্থা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে। এ এলাকায় ভূ-গর্ভস্থ জলাধার বা পানির স্তরের অভাব রয়েছে। এখানকার অধিকাংশ স্থানে ভূগর্ভের প্রায় ১২’শ ফুটের মধ্যে পানির স্তর বা জলাধার পাওয়া যায়না। এক গবেষণা রিপোর্টে জানা গেছে এ অঞ্চলের ৭৯% নলকুপে মাত্রাতিরিক্ত আর্সেনিক রয়েছে। যা স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এ অঞ্চলের মহিলাদের ২ থেকে ৫ কি. মি. পথ হেটে সুপেয় পানি সংগ্রহ করতে হচ্ছে। বক্তারা এ সময় এ অঞ্চলের এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ভূগর্ভস্থ জলাধারের অবস্থা কোথায় কেমন সে বিষয়ে হাইড্রোলজিক্যাল অনুসন্ধান কাজ সম্পন্ন, পুকুর ও দীঘি খনন করে সুপেয় পানির ব্যবস্থা করা, স্যানিটেশন ব্যবস্থাসহ সরকারের কাছে ৪ দফা দাবী তুলে ধরেন।
মানববন্ধন শেষে পানি কমিটির নেতৃবৃন্দ সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার মন্ত্রাণালয়ের মন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন।