আহত শাহিনের বাবাকে প্রবাসীর পাঠানো ৫০ হাজার টাকা প্রদান


প্রকাশিত : জুলাই ২, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: দরিদ্র ভ্যানচালক মাদ্রাসা ছাত্র শাহিনকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা ও তার ভ্যান ছিনতাই ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি করেছেন তারা বাবা হায়দার আলী মোড়ল।
তিনি বলেন, আমার ছেলে শাহিনকে ৩৫০ টাকা ভাড়ায় গত শুক্রবার সকালে ডেকে নিয়ে যায় কয়েক ব্যক্তি। এর কিছুক্ষণ পর তার কাছে খবর আসে যে তার ছেলেকে কুপিয়ে আহত করে তার ভ্যানটি ছিনিয়ে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা।
সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে আমেরিকান প্রবাসী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তির পাঠানো ৫০ হাজার টাকার অনুদানের টাকা নিতে এসে কান্নাজড়িত কন্ঠে এসব কথা বলেন ভ্যানচালক শাহিনের বাবা যশোরের কেশবপুর উপজেলার মঙ্গলকোট গ্রামের হায়দর আলি মোড়ল।
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ এ সময় শাহীনের বাবার হাতে এই টাকা তুলে দেন। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ, সিনিয়র সাংবাদিক সুভাষ চৌধুরী, কল্যাণ ব্যানার্জি, নাগরিক আন্দোলন মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান মাসুম, নাগরিক কমিটির যুগ্ম সদস্য সচিব আলীনুর খান বাবলু, সাংবাদিক সেলিম রেজা মুকুল, আসাদুজ্জামান, শাহীন গোলদার, গোলাম সরোয়ার, রামকৃষ্ণ চক্রবর্তী, কৃষ্ণ মোহন ব্যানার্জি প্রমুখ। এ সময় তার সাথে গ্রামের কয়েকজন বাসিন্দাও ছিলেন। তিনি এ সময় তার সন্তানের চিকিৎসার যাবতীয় খরচ প্রধানমন্ত্রী গ্রহণ বহন করায় তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি দেশবাসীর কাছে তার সন্তানের সুস্থতা কামনা করেন।
উল্লেখ্য, গত ২৮ জুন নিজের বাড়ি যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার মঙ্গলকোট থেকে চার যাত্রী নিয়ে ভাড়ার ভ্যান চালিয়ে পাটকেলঘাটা থানার ধানদিয়া এলাকায় আসতেই যাত্রীবেশি দুর্বৃত্তরা চালক শাহিনকে একটি পাট ক্ষেতের পাশে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় তারা তার ভ্যানটি ছিনিয়ে নিয়ে যায়। বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি শাহিনের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শাহিনের অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক।