কালিগঞ্জ সরকারি কলেজে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের হামলার চেষ্টা: প্রতিহত করলো শিক্ষার্থীরা


প্রকাশিত : জুলাই ৮, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: কালিগঞ্জ সরকারি কলেজে বহিরাগত সন্ত্রাসীরা হামলার চেষ্টা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় কলেজের শিক্ষার্থীরা সম্মিলিত ভাবে তাদের ধাওয়া করে কলেজ থেকে বের করে দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার সকাল ১১টার দিকে।
কলেজের শিক্ষার্থী সুমন ইসলাম, আমির হামজা ও আবু বক্কার জানান, সকাল ১১টার দিকে তার প্রতিদিনের ন্যায় ক্লাস করছিলাম। হঠাৎ উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদীর ছেলে অনিক মেহেদীর নেতৃত্বে ১০/১২ টি মোটরসাইকেলে বহিরাগত সন্ত্রাসী লোহার রড ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে কলেজের অধ্যক্ষ জিএম রফিকুল ইসলামের কক্ষের সামনে যেয়ে কথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। বিষয়টি জানতে পেরে আমরা সম্মিলিত ভাবে তাদের ধাওয়া করি। সন্ত্রাসী বাহিনী দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় কলেজের সামনে কচুরিপানা ভর্তি জলাশয়ে পড়ে যায়। এসময় তারা শিক্ষার্থীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ফিরে গেলে সুযোগ বুঝে কলেজের প্রাচীরের বাইরের সড়কে ২০/২৫ জনের একটি গ্রুপ ব্যানার নিয়ে মানববন্ধন করে। বিষয়টি আমরা থানায় জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছানোর আগেই তারা পালিয়ে যায়।
প্রসঙ্গত, গত ৩ জুলাই জনসম্মুখে কালিগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ জিএম রফিকুল ইসলামকে হাত পা ভেঙে কাঁকশিয়ালী নদীতে ফেলে দেয়ার হুমকি প্রদান ও লাঞ্ছিত করার ঘটনায় কলেজের শিক্ষার্থীরা হুমকিদাতা উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদীর শাস্তির দাবিতে বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে। প্রশাসন কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় গত ৬ জুলাই লম্পট সাঈদ মেহেদীকে বর্জনের ঘোষণা দিয়ে ক্যাম্পাস থেকে ঝাড়– মিছিল করে। মিছিলটি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কলেজ প্রাঙ্গনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।