প্রতিপক্ষরা কাঠ আর ইট দিয়ে সাপের মত পিটিয়ে হত্যা করে আব্দুল খালেককে


প্রকাশিত : জুলাই ২৩, ২০১৯ ||

এসকে রায়হান, খেশরা (তালা): বন-জঙ্গল থেকে বেরিয়ে আসা একটি সাপকে যেভাবে হাতের কাছে থাকা লাঠি বা কাঠ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়, ঠিক তেমনি তালা উপজেলার খেশরা ইউনিয়নের মুড়াগাছা গ্রামে প্রতিপক্ষরা ইট আর কাঠ দিয়ে খালেক সরদার (২২) নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ২২ জুলাই সকাল ৭টায়।
নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সোমবার সকালে নিহতের প্রতিবেশি ধুনাই সরদারের ছেলে রহমত সরদার, নিহত খালেক সরদারের চাচা রাজ্জাক সরদারকে বেধড়ক মারধর করে। এ সময় খালেক সরদার তার চাচা রাজ্জাক সরদারকে ঘটনাস্থল থেকে বাড়ির দিকে ফিরিয়ে নেয়ার সময় পিছন থেকে তার উপর অতর্কিত হামলা চালায় প্রতিপক্ষরা।
প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্যমতে, রহমত সরদার প্রথমে আব্দুল খালেককে কাঠের লাঠি দিয়ে সজোরে ঘাড়ে আঘাত করে। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে রহমতের ২বোন নুরজাহান ও শহরবানু ইট দিয়ে উপর্যুপরি খালেকের বুকে আঘাত করতে থাকে। এ সময় খালেকের নাক ও মুখ দিয়ে রক্ত বের হতে থাকে। এতে আব্দুল খালেকের বুক ও ঘাড় থেতলে যায়।
স্থানীয়রা মারাত্মক আহত অবস্থায় আব্দুল খালেককে উদ্ধার করে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসকরা অবস্থা শঙ্কাজনক দেখে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। সেখানে পৌঁছানোর পর ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
পোস্টমর্টেম শেষে লাশ সন্ধ্যায় তার বাড়িতে আনা হয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বর শেখ জাহিদুর রহমান জানান, রাত ৮টায় নিহতের জানাজা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে বলেও তিনি জানান।
তালা থানার অফিসার ইনচার্জ মেহেদী রাসেল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।