জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে ডেঙ্গু আতঙ্ক: আক্রান্ত ৪০ জন


প্রকাশিত : আগস্ট ৩, ২০১৯ ||

পত্রদূত রিপোর্ট: জেলায় ডেঙ্গু আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত জেলায় ৪০জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি হয়েছে বলে জানান জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন। এরমধ্যে ডেঙ্গু আক্রান্ত ৩৭জন ঢাকা থেকে এসেছে। শুধুমাত্র জেলায় বসবাসরত তিনজন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে বলে তথ্য দিলেন জেলা সিভিল সার্জন। তবে বেসরকারী হিসাব মতে এর সংখ্যা আরো বেশি।
কোরবানি ঈদ উদযাপন করতে যখন ঢাকা থেকে জেলায় মানুষ চলে আসবে তখন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আশঙ্কা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মতে চলতি বছর সারা দেশে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ২১ হাজার ছাড়িয়েছে। ৬৪ জেলাতেই এখন ডেঙ্গুর বিস্তার। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর তালিকাও। স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ৬৮৭ জন। তবে বিদ্যমান পরিস্থিতি আর কয়েকদিন অব্যাহত থাকলে তা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে বলে আশঙ্কা সংশ্লিষ্টদের।
এদিকে প্রতিদিন জেলায় ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়াতে সাধারণের মতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। জ্বরে আক্রান্ত যে কোনো রোগীর ক্ষেত্রেই ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য অপেক্ষা না করে যত দ্রæত সম্ভব চিকিৎসক বা নিকটস্থ হাসপাতালের শরণাপন্ন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।
এদিকে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও ডেঙ্গু চিকিৎসা সরাঞ্জম সংকটে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হচ্ছে বলে ভুক্তভোগীদের অভিযোগ। বিশেষ করে ডেঙ্গু পরীক্ষার (এনএস১) কিট, (আইজিজি ও আইজিএম) কিট এবং সিবিসির রি-এজেন্টের স্বল্পতা দেখা দিয়েছে জেলার হাসপাতাল সমূহে।
এদিকে জেলায় ডেঙ্গু রোগ নিয়ন্ত্রণে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন, সিভিল সার্জন, প্রেসক্লাব সভাপতি, জেলা পরিষদ সদস্য, পৌর মেয়র, কাউন্সিলর, জেলা শিক্ষা অফিসার, প্রতিষ্ঠান প্রধান, চেয়ারম্যানসহ সদরের বিভিন্ন পর্যায়ের প্রধানদের নিয়ে ডেঙ্গু রোধে করণীয় শীর্ষক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, ইতোমধ্যে ডেঙ্গু রোধে জেলায় জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। প্রত্যেক হাসপাতালে ডেঙ্গু কর্নার খোলা হয়েছে। ঈদের সময় এই রোগীর সংখ্যা বাড়তে পারে। তবে ডেঙ্গু রোধে আতঙ্কিত না হয়ে প্রতিরোধ ও সচেতন হওয়া দরকার।
সভায় জেলা শিক্ষা অফিসার এসএম আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, আজ শনিবার জেলার সকল প্রতিষ্ঠানে একঘণ্টা পরিচ্ছন্ন অভিযান পরিচালনা করা হবে। এছাড়া প্রতিদিন এক ঘণ্টা করে পরিচ্ছন্ন অভিযান অব্যাহত রাখা হবে।
মতবিনিময় সভায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহম্মদ বলেন, ডেঙ্গু রোধে জেলার সকল মিডিয়া একযোগে সচেতনতামূলক প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া জেলা প্রশাসনের সকল কর্মসূচি গণমাধ্যমে তুলে ধরা হচ্ছে।
পৌর মেয়র তাসকিন আহম্মদ চিশতি জানান, ডেঙ্গু রোধে ইতোমধ্যে পৌরসভার প্রতিটা ওয়ার্ডে ডেঙ্গু প্রতিরোধ কমিঠি গঠন করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল জানান, ডেঙ্গু রোধে সকলকে এক যোগে কাজ করতে হবে। তিনি জানান ডেঙ্গু রোধ কঠিন হলেও নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। তিনি আরো জানান, ডেঙ্গু প্রতিরোধে ব্যাপক কর্মপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। আজ শনিবার থেকে জেলাব্যাপি একঘণ্টা করে সকল প্রতিষ্ঠানে পরিচ্ছন্ন অভিযান অব্যাহত থাকবে। যতদিন ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ না হবে ততদিন অভিযান চলতে থাকবে।