কলারোয়ায় চাচাদের হাতে যুবক খুনের ঘটনায় দুই ইউপি সদস্যসহ ১১জনের নামে মামলা


প্রকাশিত : আগস্ট ৩, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলারোয়ায় চাচাদের হাতে আলফাজ হোসেন (৩০)কে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় দুই ইউপি সদস্যসহ ১১ জনকে আসামি করে কলারোয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।
নিহত আলফাজ হোসেনের বড়ভাই উপজেলার সোনাবাড়ীয়া ইউনিয়নের আড় ভাদিয়ালী গ্রামের মৃত শাহাদাৎ হোসেন শাদ গাজীর ছেলে আলতাফ গাজী বাদী হয়ে এ হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নং (৪৫) তাং ৩১-৭-১৯।
থানা পুলিশ ঘটনার রাতেই অভিযান চালিয়ে তিন নারীকে আটক করে। তারা হলো- আড় ভাদিয়ালী গ্রামের ইসমাইল গাজীর স্ত্রী দিলরুবা খাতুন (২৫), ওসমান গনির স্ত্রী বিউটি খাতুন (২২) ও মৃত গোলাপ রহমানের স্ত্রী মল্লিকা বেগম (৫৫)।
এদিকে এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ও পরিকল্পনাকারী মামলার এজাহারনামী আসামীরা হলো- সোনাবাড়ীয়া ইউনিয়নের আড় ভাদিয়ালী গ্রামের মৃত গীয়াসউদ্দিনের ছেলে ইউপি সদস্য নূরুল ইসলাম (৫৫), মৃত গোলাপ রহমানের ৩ ছেলে যথাক্রমে সলেমান গাজী (৪৫), ইসমাইল গাজী (৩৫) ও ওসমান গাজী (২৫), সলেমান গাজীর স্ত্রী খালেদা খাতুন (৩৭), তার ছেলে নাজমুল গাজী (২০), বাকসা গ্রামের মৃত চাঁদ আলী মোল্লার ছেলে রহিম মোল্লা (৫৫) এবং উত্তর সোনাবাড়ীয়া গ্রামের মৃত মাওলা বক্সের ছেলে ইউপি সদস্য আনারুল ইসলাম (৪৮)।
এ ব্যাপারে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মুনীর-উল-গীয়াসের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত এজাহারভুক্ত পলাতক আসাামদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’ উল্লেখ্য, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নিজ বাড়িতে আলফাজ হোসেনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। সে পেশায় ট্রলি চালক ছিলেন।