বেনাপোলে সাড়ে ১২ কোটি টাকা মূল্যের সাড়ে ২৭শ’ কেজি যৌন উত্তেজক ভায়াগ্রা পাউডার আটক


প্রকাশিত : August 7, 2019 ||

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি: বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে মিথ্যা ঘোষণায় আমদানি করা সাড়ে ১২ কোটি টাকা মুল্যের সাড়ে ২৭শ’ কেজি ভায়াগ্রা পাউডার আটক করেছে বেনাপোল কাষ্টম। বুধাবার সকালে এক প্রেস কনফারেন্সে একথা জানান বেনাপোল কাষ্টম কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী। সোডিয়াম স্টার্চ গ্লয়াইকোলেট আমদানীর আড়ালেআড়াই টন ভায়াগ্রা আমদানী করে ঢাকার আমদানীকারক ৪৭/ সি মিটফোর্ড রোডের মের্সাস বায়েজিত এন্টারপ্রাইজ। যার বিল অব এন্ট্রি নং সি-৩৬৪৯৬ তাং-২৯.৫.১৯। পণ্য চালানটির আমদানীকারক প্রতিষ্ঠান গত ২১মে ২০১৯ একটি এলসি খোলেন পণ্যটি আমদানী করার জন্য। যার এলসি নং০০০০৯৪৬১৯০১০৩৪২। পণ্য চালানটির প্যাকিং লিষ্টে আমদানীকরা হয় ২৫০০ কেজি সোডিয়াম স্টার্চ গ্লাইকোলেট। কিন্তু পণ্য চালানটি জব্দ করার পর পরীক্ষণ করে দেখা যায় সিলডেনাফিল সাইট্রেট (ভায়াগ্রার মুল উপাদান। বিশ্বে এধরনের চালান এটাই সর্বপ্রথম বলে জানায় কাষ্টম কর্তৃপক্ষ। পোলান্ড ও ভারত থেকে আমদানি করা হয় এজাতীয় পাউডার। এনার্জি ডিঙ্ক, ইউনানী ঔষধে ও ঔষধ শিল্পে এধরনে পাউডার। উল্লেখ্য ইতিপূর্বে আরো দুটি চালান আটক করে কাষ্টম। বেনাপোল কাষ্টম ল্যাবে রোমন স্পেক্টাম ম্যাশিন থাতায় এধরনের চালান সনাক্ত করা সম্ভব হচ্ছে।
পণ্য চালান টির বেনাপোল কাষ্টমস হাউসের ইনভেষ্টিগেশন রিসার্স এন্ড ম্যানেজমেন্ট গ্রুপের একটি প্রতিনিধি দল জব্দকৃত মালামাল পরিক্ষণ করেছেন। পরীক্ষণের পর বুধবার রিপোর্ট পেশ করেছেন। রিপোর্টে পণ্যচালানটির মালামাল ঘোষণার আড়ালে ভায়াগ্রা পাওয়া গেছে। যা থেকে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি হচ্ছিল সাড়ে ১২ কোটি টাকা বলে জানান কাষ্টমস কর্তৃপক্ষ।
বেনাপোল কাষ্টম হাউসের কমিশনার বেলাল হোসাইন চৌধুরী সাংবাদিকদের এক প্রেস ব্রিফিং এ জানান গোপন সুত্রে সংবাদ পায় একজন আমদানীকারক ভারত থেকে ঘোষনার আড়ালে এ পণ্য চালানটি বেনাপোল বন্দরে নিয়ে আসছে। এমন সংবাদে কাস্টম হাউসের একটি প্রতিনিধিদল বন্দরের সেড থেকে পণ্য চালানটি জব্দ করেন। পণ্য চালাানটির সিএন্ডএফ এজেন্ট ছিলেন মেসার্স সাইনী শিপিং সার্ভিসেস। লাইসেন্সটি সাময়িক বাতিল করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বুধবার জয়েন্ট কমিশনার শহিদুল ইসলামকে প্রধান করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট্য একটি তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে।