এডিস মশা বংশ বিস্তারের আলামত ধ্বংস না করে ঘরে ফিরব না: এমপি রবি


প্রকাশিত : আগস্ট ১০, ২০১৯ ||

মীর মোস্তফা আলী: সাতক্ষীরা সদর আসনের এমপি মীর মোস্তাক আহমেদ রবি বলেন, এডিস মশা বংশ বিস্তারের আলামত ধ্বংস না করে ঘরে ফিরব না। আমরা কোন প্রকার গুজবে কান দিব না, আমরা ডেঙ্গুমুক্ত সাতক্ষীরা গড়তে এডিস মশা নিধনে যা কিছু প্রয়োজন তা করব। নিজ হাতে সব কিছু পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করব। জেলা প্রশাসনের সমন্বিত উদ্যোগকে সহযোগিতা করব। নিরাপদ খাদ্য খাব এবং নিজে সচেতন হই, বাড়ির পাশের লোকটিকে সচেতন করি। এ কাজগুলি করলে আমরা সবার আগে সাতক্ষীরাকে ডেঙ্গুমুক্ত করতে পারব।
জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল বলেন, জাতি হিসেবে আমাদের অভ্যাস ভুলে যাওয়া। জাতির দীর্ঘ ইতিহাস জাতি আজ ভুলে গিয়েছে। এখন আর ভুলে গেলে চলবে না। স্মরণ রাখতে হবে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা শেখ মুজিবর রহমানকে। ডেঙ্গু প্রতিরোধ, এডিস মশা নিধন ও গুজব সম্পর্কে মাসব্যাপি যে কর্মসুচি গ্রহণ করছে, তা সবাই মিলে এ কর্মসুচিতে অংশগ্রহণ করবেন। এছাড়া একদিন এক ঘন্টা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান করবেন। আমি জেলা প্রশাসক পৌর সভার কয়েকটি ওয়ার্ডের মানুষে বাড়ি বাড়ি যেয়ে আমার যে অভিজ্ঞতা হয়েছে, তা মনে হয় আপনারা সচেতন হতে চান না, দোষ অন্যের ঘাড়ে চাপাতে চান, সরকার করেনি, পৌরসভা করেনি, কাউন্সিলররা করেনি এভাবে বলেছেন আপনারা। আসলে আপনারা কাজ করতে চান না। মনে রাখবেন, এ কাজ সরকার বা আপনার একার পক্ষে সম্ভব না। তাই সকলকে এ কাজে অংশ নিয়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও এডিস মশা নিধন করতে হবে।
ডেঙ্গুজ¦রে আতঙ্কিত না হয়ে সাহসীকতার সাথে এডিস মশা বংশ বিস্তার রোধে আমরা প্রতিদিন এক ঘন্টা করে নিজেরা আমাদের বাসাবাড়ি আঙ্গিনা, ছাদবাগান, ফুলের টব, নারিকেলের খোলা, গর্ত, ড্রেন, ভাঙ্গা হাড়ি পাতিলসহ যে সব স্থানে পানি জমে তা পরিস্কার করব। ফ্রিজের পানি, এসির জমা পানিতে এডিস মশার জন্ম হয়। এগুলি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করি। অন্যথায় ঈদের পর থেকে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, এসিলান্ড, জনপ্রতিনিধি, রোভারসহ প্রতিটি এলাকায় যে কমিটি করে দেওয়া হয়েছে, সে কমিটির কর্মকর্তা যে কোন সময় আপনাদের বাড়ির আঙ্গিনায় উপস্থিত হবেন। পরিস্কার পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম দেখবেন এবং এডিস মশা বংশ বিস্তারের আলামত পেলে আইনী ব্যবস্থা নেবেন এবং যারা আন্তরিকতার সাথে সরকারের পাশাপাশি এ কর্মসুচিতে অংশ নিয়ে কাজ করছেন তাদেরকে ধন্যবাদ। আসুন আমরা শোকের মাসে শোককে শক্তিতে পরিণত করে এডিস মশা নিধন না করে ঘরে ফিরব না। আর বাড়ি বাড়ি যে অভিযান চলছে তা সাহসিকতার শাথে পালন করি। তাহলে আমি, আপনি, আমরা ও আমাদের সন্তানরা ডেঙ্গুমুক্ত দেশ বা জেলাতে বাস করতে পারব।
মহান শোকের মাস আগস্টে মাসব্যাপি কর্মসূচির অংশ হিসেবে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেনতামূলক সভা ও বিশুদ্ধ খাদ্য সমাবেশে অতিথিবৃন্দ এ সব কথা বলেন।
পৌর মেয়র তাসকিন আহমেদ বলেন, আমার পৌর সভার পক্ষ থেকে পর্যাপ্ত অবকাঠামো উন্নয়ন করতে পারিনি। ঈদের পর পৌরসভার পক্ষ থেকে রাস্তা ও ড্রেনের কাজ শুরু করব। আমরা ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও এডিস মশা নিধনে প্রতিদিন পরিস্কার পরিচ্ছন্ন কাজ করব। নিজে ও প্রতিষ্ঠানিকভাবে নিজে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন কাজ করব। নিজে পরিস্কার থাকব অন্যকে পরিস্কার থাকতে উৎসাহিত করব। আপনারা সায়ের খালে বা রাস্তায় ময়লা আর্বজনা ফেরবেন না। পৌর সভার নির্ধারিত স্থানে ফেলবেন। আর পৌর সভার কর্মী বাহিনী সে ময়লা ফেলে দিবে। তাহলে দেখবেন এডিস মশা বংশ বিস্তার করতে পারবে না। আমরা জেলা প্রশাসকের তৎপরতার এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখলে আমরা ডেঙ্গুমুক্ত সাতক্ষীরা গড়তে পারব। নিজে পরিস্কার হব সব কিছু পরিস্কার করব।
শনিবার (১০ই আগস্ট) সুলতান পুর বড় বাজারে জেলা প্রশাসন ও কৃষিবিপনির আয়োজনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
সমাবেশে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি।
সমাবেশ শেষে অতিথিবৃন্দ বড় বাজারসহ প্রধান প্রধান সড়কের সাধারণ মানুষের হাতে সচেতনতা লিফলেট বিতরণ করেন।