প্রতীক্ষা


প্রকাশিত : আগস্ট ১৭, ২০১৯ ||

তৌফিকুল ইসলাম
কুমড়ো লতার কোমল বিনুনী ধরে
অপরাহ্নে দোল খায় ময়ূখমালী ,
নদী ঘেঁসা মাতাল গাছটাও
উপুড় ঝুপুর চুল ভেজায়
ঢেউয়ের আহ্লাদে ভাসে কুমারী যৌবন।

সূর্যটা গড়িয়ে গড়িয়ে সময়কে দৌড়ায়,
নিরবধি বয়ে চলা স্রোতস্বিনী
ছুটে চলে জলজ জমিনে
গভীরতা যার ছোঁয়নি কেউ ।

জলের ভেতর মদের আশ্চর্য গন্ধ ,
পানপাত্রে দ্রাক্ষারস ঠোঁটে মিলে ঠোঁট,
ঠোঁটের দূরত্বে দ্বিধাহীন চাঁদটা
কামুক শ্বাসে ভিজিয়ে দেয়
শিরা – উপশিরা প্রবল গ্রাসে ।

হরিণী কস্তুরী ঘ্রাণে দেবরাজ জিউস
জলের স্ফটিক আর্শিতে খোঁজে
আইও’র নিটোল সংগুপ্ত উরু।
মোম জ্যোৎস্না ঢেউ ভাঙে,
বেঘোর সঙ্গমে উথলিত নদী।
তার আঁচল ধরে অহর্নিশ
হেঁটে হেঁটে যায় অতন্ত্র জিউস,
চোখে তার সতৃষ্ণ মাতাল স্রোত,
অঁরি আভ্রিলের ঘোরলাগা ন্যুড চারুমুখ।