ফিংড়িতে রাতের আঁধারে গাছ কেটে দোকার ঘর নির্মাণের অভিযোগ উচ্ছেদের দাবিতে জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা


প্রকাশিত : আগস্ট ১৯, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: রবিবার সকালে সদর উপজেলার ফিংড়ি ইউনিয়নের ব্যাংদহা বাজারে সরকারি জমি থেকে রাতের আঁধারে গাছ কেটে তা আত্মসাৎ করা হয়েছে। গাছ কেটে সেখানে ঈদের লম্বা ছুটিতে অবৈধভাবে ঘর নির্মাণ করায় তা উচ্ছেদের জন্য এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করা হয়েছে। জানা গেছে, ফিংড়ি ইউনিয়নের ভূমি অফিসের সরকারি জায়গা হতে গাছ কর্তন করেছে পরে সেই জায়গায় ঈদের লম্বা ছুটির মধ্যে জোড়দিয়া গ্রামের শেখ আবুল খায়েরের পুত্র শেখ আজিজুর রহমান অবৈধভাবে দোকান ঘর নির্মাণ কাজ করেছেন। এ বিষয়ে মোবাইলে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং সহকারী কমিশনার ভূমি সাতক্ষীরা সদর এবং ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মিজানুর রহমানকে অবহিত করা হলেও কোন প্রতিকার হয়নি বলে দাবি করেছেন এলাকাবাসি। এতে সুবিধা পেয়েছেন শেখ আজিজুর রহমান। ফলে নির্বিঘেœ দোকান ঘর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করছেন তিনি। অবৈধভাবে নির্মিত দোকানঘর উচ্ছেদ করে সরকারি গাছ কাটার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। উল্লেখ্য, ২ আগস্ট সদর উপজেলার ফিংড়ি ইউনিয়ন ভূমি অফিসের সীমানার ভিতর থেকে একটি মাঝারি সাইজের মেহগনি গাছ কাটা হয়েছে। এ ঘটনায় ব্যাংদহা বাজারের ইজারাদার মো. ছরোয়ার আজাদ এবং প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক নির্মল কুমার দাস গত ৬ আগস্ট সহকারি ভূমি অফিস বরাবর অভিযোগ করেছেন। এছাড়া সাতক্ষীরা সদর এমপি মীর মোস্তাক আহম্মেদ রবি, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাশিষ চৌধুরীকে অবৈধভাবে নির্মিত দোকান ঘর উচ্ছেদ করার জন্য নির্দেশ প্রদান করলে আজও তার ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় পুনরায় এমপি মীর মোস্তাক আহম্মেদ রবির সুপারিশ নিয়ে অবৈধভাবে নির্মিত ঘর উচ্ছেদের জন্য এলাকাবাসির পক্ষ থেকে আবেদন করা হয়েছে।