আশাশুনিতে সম্পত্তির ভাগ না দেয়ার জন্য ভাবীকে কুপিয়ে জখম


প্রকাশিত : আগস্ট ২০, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: পৈত্রিক সম্পত্তির ভাগ না দেয়ার লক্ষে ভাই হজে¦র উদ্দেশ্যে সৌদিতে থাকার সুবাদে ভাবীকে পিটিয়ে আহত করার পর গুম করার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে দেবর ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে। তাৎক্ষণিক তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। রোববার দুপুরে জেলার আশাশুনি উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নের কলিমাখালি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। শহরের পলাশপোলের বর্তমান বাসিন্দা এড. নুরুল আমীনের স্ত্রী নাজমা আমীন অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তার শ^শুর মৃত নুরুল ইসলামের অন্তত ৩০ বিঘা সম্পত্তি দেবর সাইফুল আমীন নিজেই ভোগ দখল করে আসছিল। নাজমা আমীনের স্বামী এড. নুরুল আমীন আদালতে আইন পেশায় থাকার সুবাদে শহরে অবস্থান করায় বাড়ির পুরো সম্পত্তি দেবর ভোগ দখল করতে থাকে। এক পর্যায়ে এসব সম্পত্তির ভাগ চাওয়ায় পারিবারিকভাবে বেশ কিছুদিন অসন্তোষ চলছিল। স্বামী নুরুল আমীন হজে¦র উদ্দেশ্যে সৌদিতে অবস্থান করছেন। সম্প্রতি শেষ হওয়া ঈদুল আজহার পরদিন গ্রামের বাড়িতে যায় এড. নুরুল আমীনের স্ত্রী নাজমা আমীন ও তার দুই কন্যা। এক পর্যায়ে সম্পত্তির বিষয় নিয়ে কথা উঠলে দা দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে দেবর সাইফুল আমীন ও তার স্ত্রী পারুল সুলতানা ভাবী নাজমা আমীনকে আহত করে। এখানেই শেষ নয় নাজমা আমিনের অভিযোগ সে গুরুতর জখম হয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে গুম করারও চেষ্টার অভিযোগও করেন তিনি। স্থানীয়দের ও মেয়েদের সহায়তায় আহত অবস্থায় নাজমা আমীন সাতক্ষীরা শহরে এসে সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। তার অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।
রাতে সেল ফোনে নাজমা আমীন জানান, স্বামী বাড়িতে না থাকার সুযোগে তার দেবর ও দেবরের স্ত্রী চরমভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে গুমের চেষ্টা করে। এঘটনায় আজ মঙ্গলবার দেবর ও দেবরের স্ত্রীসহ কয়েকজনকে আসামী করে আদালতে মামলার প্রস্তুতি চলছে। তিনি আরও বলেন, তার দেবর স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধির ছত্রছায়ায় থেকে মাদকের ব্যবসা চালিয়ে গেলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও কিছুই বলেনা। তবে এসব ব্যাপারে দেবর সাইফুল আমীনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে কথা বলা সম্ভব হয়নি।