সুশীলনের প্রতীক প্রকল্পের আওতায় সাংবাদিকতায় ফেলোশীপ পেলেন সাতক্ষীরা ৩ সাংবাদিক


প্রকাশিত : আগস্ট ২১, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: বে-সরকারি উন্নয়ন সংস্থা সুশীলনের প্রতীক প্রকল্পের আওতায় তিন সাংবাদিককে লার্নিং, শেয়ারিং অন ফেলোশীপ ফর জার্নালিস্ট এর উপর ফেলোশীপ প্রদান করা হয়েছে। ফেলোশীপ প্রাপ্তরা হলেন- সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সদস্য ও বাংলানিউজের জেলা প্রতিনিধি শেখ তানজির আহম্মেদ, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক পত্রদূতের নিজস্ব প্রতিনিধি আব্দুস সামাদ প্রেসক্লাবের নিবার্হী সদস্য ও চ্যানেল নাইনের সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি কৃষ্ণ মোহন ব্যানার্জী। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টায় সুশীলনের প্রধান কার্যালয়ে সুশীলনের উপ-পরিচালক মোস্তফা আক্তারুজ্জামান পল্টুর সভাপতিত্বে ফেলোশীপ প্রাপ্তদের সনদ ও চেক তুলে দেওয়া হয়।
অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কালিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি শেখ সাইফুল বারী সফু, সাধারণ সম্পাদক সুকুমার দাশ বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রহমান শিমুল, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের কালিগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপক শেখ আব্দুল হামিদ, সহ-ব্যবস্থাপক হারুন-অর রশিদ, প্রকল্প সমন্ময়কারী মনিরা সুলতানা, প্রকল্প কর্মকর্তা তাপস কুমার মিত্র, একাউন্স কাম লজিষ্টিক অফিসার অপুর্ব মন্ডল ও ইমরান হোসেন, প্রকল্প ইঞ্জিনিয়ার শামীম হাসান, ফিল্ড ফ্যাসিলিটেটর ইয়াসমিন সুলতানা, মীর হাসিব উল্যাহ, দিপংকর ঘোষ, শহীদুল ইসলাম, কমিউনিটি ভলেন্টিয়ার মোমেনা খাতুন ও একাউন্স অফিসার কৃষ্ণা কর্মকার
এই প্রজেক্টের আওতায় শ্যামনগর উপজেলার আটুলিয়া গ্রামে মোবাইলে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারে করে আইলা পরবর্তী লবণাক্ত জমিতে সবজি চাষ, ১ শ’ নারীকে শপিং ব্যাগ তৈরির প্রশিক্ষণ ও স্মার্টফোন প্রদান করা হয়। ঐ সকল নারীরা অনলাইন এ্যাপস ব্যবহার করে সবজি চাষ করে আজ স্বাবলম্বী। ৫ বছর মেয়াদী ‘প্রতীক প্রকল্পটি’ চলতি বছরের ডিসেম্বরে শেষ হবে।