জেলার সব খালের বন্দোবস্ত বাতিল করলেন জেলা প্রশাসক


প্রকাশিত : আগস্ট ২২, ২০১৯ ||

নাগরিক সংলাপে পানি নিষ্কাশনের বাঁধা অপসারণে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ
পত্রদূত রিপোর্ট: জেলার প্রধানতম সমস্যা জলাবন্ধতা নিরসনে ও জনস্বার্থে বন্দোবস্তকৃত সকল খালের ইজারা বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। জলাবদ্ধ এলাকার পানি নিষ্কাশনের প্রয়োজনে বেড়িবাঁধ নেটপাটা অপসারণের কাজ শুরু করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নাগরিক সংলাপে উপরোক্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন তিনি।
সভায় আরো বলা হয়, জলাবদ্ধতা নিরসনের কাজে বাঁধা সৃষ্টি করা হলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। জেলার ৭ উপজেলায় নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে জলাবদ্ধতা নিরসনে সকল সরকারি খাল অবমুক্ত করা, পানি নিষ্কাশনে খালের বাঁধা অপসারণ করা, নেটপাটা তুলে ফেলতে নির্দেশ প্রদান করা হয়। জেলা প্রশাসক সামান্য বৃষ্টিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতা নিরসনে গৃহীত পদক্ষেপের প্রশ্নে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকারও আহবান জানান।
বৃহস্পতিবার বিকালে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত নাগরিক সংলাপে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মো. বদিউজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (রাজস্ব) এমএস মাহবুবুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেবাশীষ চৌধুরী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) রনি আলম নূরসহ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তা, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলী, মৎস্য ও কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
জেলা নাগরিক কমিটির উদ্যোগে গত ২০ আগস্ট জেলার জলাবদ্ধতা নিরসনে জেলা প্রশাসকের বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হলে তৎক্ষণিভাবে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল জেলার বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ, পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর, প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন এলাকার জনপ্রতিনিধিগণকে নিয়ে নাগরিক সংলাপের আয়োজন করেন।
সভায় নাগরিকবৃন্দের পক্ষে আবুল খায়ের সরদার, অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, জিএম নূর ইসলাম, মো. আনিছুর রহিম, আবুল কালাম আজাদ, এড. শাহানাজ পরভীন মিলি, অধ্যাপক মোজাম্মেল হোসেন, কাউন্সিলর শেখ সফিক উদ দৌলা সাগর, মো. জাহাঙ্গীর হোসের কালু, মো. শহিদুল ইসলাম, আব্দুস সেলিম, শফিকুল ইসলাম বাবু, পৌর সচিব সাইফুল ইসলাম বিশ্বাস, প্রকৌশলী নাজমুল করিম ও শুভ্রচন্দ্র মহলী, ফিংড়ি ইউপি চেয়ারম্যান শামছুর রহমান, লাবসা ইউপি সদস্য রুবিনা পারভীন, অধ্যক্ষ শিবুপদ গাইন, হাফিজুর রহমান মাসুম, আলী নূর খান বাবুল, কামরুজ্জামন রাসেল, জাকির হোসেন লস্কর, মো. মশিউর রহমান, ছালাউদ্দিন, মো. ইশবাল, পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. রাশিদুর রহমান প্রমুখ বক্তব্য দেন।
সভায় সাতক্ষীরা পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রতিটি ওয়ার্ডে ৭সদস্য বিশিষ্ট কমিটি করার দিক নির্দেশনা প্রদান করা হয়। এছাড়া জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের পক্ষ থেকে অবৈধ দখলদারের অবিলম্বে নিজ দায়িত্বে অবৈধ বেড়িবাঁধ নেটপাটা অপসারণের গণবিজ্ঞপ্তি জারি করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। একই সাথে জলাবদ্ধতা নিরসনে স্বল্প মেয়াদী ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণের জন্য আগামীতে বিশেষজ্ঞগণের উপস্থিতিতে একটি কর্মশালা আয়োজনের নির্দেশনা প্রদান করেন জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল।