ডুমুরিয়ায় বাল্যবিয়ের অপরাধে ৭ অভিভাবকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ


প্রকাশিত : আগস্ট ২৮, ২০১৯ ||

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি: ডুমুরিয়ায় প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে মেয়েকে বাল্যবিয়ে দেওয়ার অপরাধে সাত অভিভাবকের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পারিচালিত হয়েছে।
আদালত সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৭জন অভিভাবক গোপনে মেয়েকে বাল্য-বিবাহ দেওয়া এবং প্রস্তুতি নেওয়ার অপরাধে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়। ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোছা. শাহনাজ বেগম বুধবার এ আদালত পরিচালনা করেন। তিনি দীর্ঘ শুনানি শেষে অভিযুক্তদের মধ্যে খর্ণিয়া গ্রামের কন্যার অভিভাবক তারাপদ দাশের নিকট থেকে ৫ হাজার টাকা, অমল দাশের নিকট থেকে ৫ টাকা ও দেড়–লি গ্রামের ইদ্রিস ফকিরের নিকট থেকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এছাড়া আঙ্গারদোহা গ্রামের মতিয়ার রহমান মোড়ল, টিপনা গ্রামের রঞ্জন বিশ্বাস, গোনালির গোবিন্দ দাশ, মাগুরাঘোনা গ্রামের হাফিজুর রহমান শেখের নিকট থেকে মেয়েকে আঠারোর আগে বিয়ে না দেওয়ার মুচেলাকা নিয়ে ছেড়ে দিয়েছেন। আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন উপজেলা মহিলা ও শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা বিপাসা দেবী তনু ও এনজিও সংস্থা প্রসেস’র এ্যাডভোকেসি কো-অর্ডিনেটর মিল্টর বারিকদার।