সুন্দরবন সাতক্ষীরাকে মায়ের মতো আগলে রেখেছে: এমপি রবি


প্রকাশিত : আগস্ট ৩১, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: ‘পরিকল্পিত ফলচাষ, যোগাবে পুষ্টিসম্মত খাবার ও শিক্ষায় বন প্রতিবেশ আধুনিক বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জেলায় দশ দিনব্যাপি ‘বৃক্ষরোপন অভিযান ও বৃক্ষমেলা’র সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে সাতক্ষীরা শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে জেলা প্রশাসন, সামাজিক বন বিভাগ ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সাতক্ষীরার যৌথ আয়োজনে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. বদিউজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় ও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সদর আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি রবি বলেন, ‘গাছ আমাদের পরম বন্ধু। আমাদের জীবন যাপনের জন্য অক্সিজেন দেয়। আমাদের জীবন বাঁচাতে বেশি বেশি গাছ লাগাতে হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা বজ্রপাত থেকে রক্ষা পেতে বেশি বেশি তাল গাছ রোপনের আহবান জানিয়েছেন। আগের সেই সুন্দরবন আর নেই। গাছ কেটে কেটে সুন্দরবনকে ধ্বংশ করছে মানুষ। সুন্দরবনের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে হবে। সুন্দরবন না বাঁচলে আমাদের দক্ষিণ অঞ্চলের মানুষ বাঁচবেনা। সুন্দরবন সাতক্ষীরা জেলাকে মায়ের মত আগলে রেখেছে।’
অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সামাজিক বনায়ন সাতক্ষীরা জোন’র সহকারি বন সংরক্ষক অমিতা মন্ডল।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর (সার্কেল) মো. জিয়াউর রহমান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সাতক্ষীরার উপ-পরিচালক অরবিন্দ বিশ^াস প্রমুখ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মারুফ বিল্লাহ, জেলা তথ্য অফিসার মোজাম্মেল হক, এনডিসি দেওয়ান আকরামুল হক, জেলা নার্সারী মালিক সমিতির সভাপতি নুরুল আমীন প্রমুখ। মেলায় প্রথম স্থান অধিকার করে বিসমিল্লাহ নার্সারী, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে দি সাতক্ষীরা নার্সারী ও যৌথভাবে তৃতীয় স্থান অধিকার করে উজ্জল নার্সারী ও ফাহিম নার্সারী। ২১ আগস্ট বুধবার হতে শুরু হওয়া এ বৃক্ষরোপন অভিযান ও বৃক্ষ মেলা ২৭ আগস্টে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও মেলার সময় বৃদ্ধি করা হয়। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সদর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. আমজাদ হোসেন।