কেশবপুরে বিএনপির দু’গ্রুপের পৃথক কর্মসূচী পালিত


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২, ২০১৯ ||

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: বিএনপির ৪১তম প্রষ্ঠিাবাষিকী পালন উপলক্ষে রবিবার সকালে কেশবপুরে দু’গ্রুপ পৃথকভাবে কর্মসূচি পালন করেছে। কেশবপুর পৌর বিএনপির সভাপতি সাবেক মেয়র আব্দুস সামাদ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে থানার মোড়ে অবস্থিত উপজেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা ও দোওয়া অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পৌর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ জুলফিক্কার আলী, সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রভাষক আলা উদ্দীন আলা, সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা যুবদলে সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর কুতুবুদ্দিন বিশ্বাস, উপজেলা বিএনপির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শরিফুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক নেতা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি যুবনেতা আব্দুল হালিম অটল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক যুবনেতা আব্দুল গফুর, যশোর জেলা ছাত্রদলের সহ-দপ্তর সম্পাদক ফারুক হোসেন, উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি তরিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি মজনুর রহমান ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বাবুল রানা প্রমুখ। অনুষ্ঠানে আজাদ বিরোধী উপজেলা, পৌর ও ইউনিয়ন পর্যায়ে বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের ত্যাগী নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে নেতৃবৃন্দ কেশবপুর উপজেলা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম আবু বক্কর আবুর কবর জিয়ারত করেন।
অপর দিকে একই সময় থানার মোড়ে আজাদের ব্যক্তি মালিকানা সম্পত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত বিএনুপর দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবুল হোসেন আজাদের সভপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, সাংগঠনিক সম্পাদক মশিয়ার রহমান। বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের উল্লেখযোগ্য নেতাদের উপস্থিতি না থাকলেও আজাদ গ্রুপের সভায় নব্য বিএনপির ছড়াছড়ি ছিল চোখে পড়ার মত।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতা বলেন শিল্পপতি আর দলপতি কখনো এক হযনা, দলের নেতা-কর্মীদের মুল্যায়নের মাধ্যমেই কেবলমাত্র একজন যোগ্য নেতা হওয়া সম্ভব-অন্যথায় নয়। অযোগ্য সভাপতি আবুল হোসেন আজাদের শিল্পের রাজনিতির বেড়াজাল ভেঙ্গে কেশবপুরের বিএনপির ত্যাগী নেতা-কর্মীরা আজ সঠিক নেতৃত্বের সন্ধানে ঐক্যবদ্ধ। আজাদের কর্মসূচীতে দলের ত্যাগী নেতা-কর্মী শূন্যতাই তার বাস্তব প্রমান।