বোয়ালিয়া বীজ উৎপাদন খামারে আউশের ফলন ভাল


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৯ ||

প্রকাশ ঘোষ বিধান, পাইকগাছা (খুলনা): পাইকগাছার বোয়ালিয়া বীজ উৎপাদন খামারে আউশের ফলন ভাল হয়েছে। আউশের আশানারূপ ফলন থেকে ভাল বীজ পাওয়া যাবে বলে খামারকর্তৃপক্ষ আশাবাদী। খামার সূত্রে জানা গেছে, চলতি আউশ মৌসুমে খামারে ২০ একর জমিতে ধানের আবাদ হয়েছে। ২ একর জমিতে বীজতলা তৈরি করা হয়। মে মাসে বীজতলা তৈরি করার পর ২৫ থেকে ৩০ দিন পর থেকে রোপন করার উপযুক্ত হয়। খামারে ২০ একর জমিতে আউশের আবাদ করা হয়েছে। এর মধ্যে বিআর ২৬ দশ একর,ব্রি ধান ৪৮-সাত একর  ও নেরিকা নিউ টেন (কুদরত) তিন একর এ জাতের ধানের আবাদ করা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় আউশের আবাদ খুবই ভাল হয়েছে। তবে সম্প্রতি একাধারে তিনদিনের বৃষ্টিতে ধান ক্ষেত আংশিক তলিয়ে যায়। সময়মত পানি নিষ্কাশন করে ধান ক্ষেতের পরিচর্যা করায় ধানের কোন ক্ষতি হয়নি।  বোয়ালিয়া বীজ উৎপাদন খামারের সিনিয়র সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ কামাল উদ্দীন মোল¬া জানান, খামারে ২০ এক জমিতে আউশের আবাদ করা হয়েছে। উপকূলের লবণাক্ত এলাকায় এ খামারের অবস্থান হওয়ায় আবাদে অধিক পরিচর্যা করতে হয়। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ও সর্বক্ষণিক তদারকি করায় আউশের ফলন ভাল হয়েছে। খামারের ধান পাকা শুরু হয়েছে। মাঝে মাঝে বৃষ্টি হচ্ছে সে কারনে ধান কাটত দেরি হচ্ছে। বিআর ২৬ ধানে পানি লাগলে অংকুর হওয়ার আশঙ্কা থাকে। সে জন্য একটানা রোদ হলে ধান কাটা শুরু হবে। খামারের উৎপাদিত আউশের ফলন থেকে বীজ তৈরী লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে বলে তিনি জানান।