সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন বাঁগআচড়ায় আধুনিকতার ছোয়া: পাল্টে গেছে জীবনযাত্রা ও দৃশ্যপট


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৯ ||

এম এ রহিম, বেনাপোল (যশোর): ডিজিটাল এ যুগে যশেরের শার্শা সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন বাঁগআচড়ায় লেগেছে আধুনিকতার ছোয়া। গত ৮বছরের ব্যবধানে গড়ে উঠেছে একাধিক দৃষ্টি নন্দন স্থাপনা ও কলকারখানা। পাল্টে গেছে মানুষের জীবন যাত্রা ও এলাকার দৃশ্যপট। কাঙ্খিত সেবা ও উন্নয়নে খুশি এলাকার মানুষ।
গ্রাম হবে শহর, সরকারের এ ধারণার সফল প্রতিফলন ঘটেছে যশোরের শার্শা উপজেলার বাগআচড়া ইউনিয়নে। ১৯৫৩ সাল থেকে এ ইউনিয়নের কার্যক্রম শুরু। ১৪টি গ্রামের সমন্বয়ে গঠিত ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের দৃশ্যপট আজ পাল্টে গেছে। শহরের ছোয়া লেগেছে সীমান্ত জনপদের প্রতিটি গ্রামে। একযুগ আগে গ্রামে ছিলনা বিদ্যুৎ-রাস্তা, ভাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিনোদনের ব্যবস্থা। আর এখন এখানে দিনরাত সমান। দিনবদলের হাওয়ায় সর্ব ক্ষেত্রেই লেগেছে উন্নয়ন, আধুনিকতার ছোয়া। পাকা রাস্তায় চলেছে যান্ত্রিক যানবাহন, অত্যাধুনিক সিনেমা হল, বঙ্গবন্ধু ম্যূরাল, বঙ্গবন্ধু মঞ্চ, শেখ রাসেল মঞ্চ, মুক্তিযোদ্ধা ভাস্কর্য্য, সুরম্য আধুনিক ভবন ও শপিংমল, ক্লিনিক-অত্যাধুনিক খেলার মাঠ, মসজিদ মন্দির ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।
স্থানীয় সুবিধাভোগী সাখাওয়াত ও খন্দকার জাবেদ এসব উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় এমপি ও চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ জানান। অভূতপূর্ব কাজের সাফল্যে খুশি এলাকার মানুষ।
শিক্ষক, শিক্ষার্থী, ইমাম ও নারীরা জানান, বাগআচড়া ইউনিয়ন মফস্বল এলাকা হলেও ধর্মীয় প্রতিষ্টান মসজিদ মাদ্রাসা, বালিকা বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন আধুনিক স্থাপনায় খুশি তারা। মিনি ষ্টেডিয়াম সু-সজ্জতি লাইটিং, ফুটপথ, গ্যালারী, ড্রেন ও আধুনিক পশুহাট ও বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা সম্মিলিত ক্লিনিক ও ব্যবসা প্রতিষ্টান।
মহিলা সদস্য ও স্থানীয়রা বলেন, স্বপ্নের শহরে পরিনত হয়েছে বাগআচড়া। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এমপি শেখ আফিল উদ্দিন ও স্থানীয় চেয়ারম্যান ইলিয়াজ কবির বকুলের আন্তরিকতায় লেগেছে আধুনিকতার ছোয়া। মেয়ে ও ছেলেসহ সর্বস্থরের মানুষ ভোগ করছে সুযোগ সুবিধা, সহযোগিতা করছেন তারা।
বাঁগআচড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ইলিয়াজ কবির বকুল বলেন, জনগনের সব সেবার মান বৃদ্ধিতে আন্তরিকতার সহিত একাধিক উন্নয়ন করা হচ্ছে। এর সুফল পাচ্ছেন সর্বসাধারণ। বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়া ও গ্রামকে শহর করার লক্ষে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। এমপির দিক নির্দেশনায় একাধিক উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। অচিরেই আরো উন্নয়ন হবে এলাকায়। তবে সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। উন্নয়নের এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রীর সৃদৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকাবাসি।