যশোরে প্রিয়জনের কাছে চিঠি লেখা প্রতিযোগিতা


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৯ ||

বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময়ে মা আমাকে অনেক চিঠি লিখেছেন। মায়ের লেখা শেষ চিঠিটা আজও আমার কাছে পরম যতনে রাখা আছে। আজ মা নেই। কিন্তু ওই চিঠিটা যখন হাতে নিই; পড়ি। তখন মায়ের পরশ উপলব্ধি করি।’

প্রথম আলো যশোর বন্ধুসভার আয়োজনে প্রিয়জনের কাছে চিঠি লেখা প্রতিযোগতা অনুষ্ঠানে সোমবার দুপুরে ডা. আবদুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজের অধ্যক্ষ জেএম ইকবাল হোসেন এভাবেই নিজের জীবনের কথা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, ‘হৃদয়ের আবেগ প্রকাশের অন্যতম মাধ্যম হলো ‘চিঠি’। সামাজিক গণমাধ্যম-ফেসবুক ম্যাসেনজারের কারণে এই চিঠি লেখার অভ্যাস একেবারেই হারিয়ে যাচ্ছে। চিঠি লিখলে দুইটি বিষয়ে চর্চা হয়-একটি হলো, হাতের লেখা সুন্দর হয়, অপরটি হলো- যার উদ্দেশ্যে লেখা, তার প্রতি শ্রদ্ধা ভালোবাসা আরো বেড়ে যায়। এজন্য লেখার অভ্যাস ধরে রাখতে হবে।’

কলেজ মিলনায়তনে দুপুর সোয়া একটায় প্রতিযোগিতা শুরু হয়। এতে কলেজের ৪০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন। এর আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান করা হয়। এতে বক্তব্য রাখেন কলেজের উপাধ্যক্ষ মঞ্জুরুল ইসলাম, বাংলা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক তপন কুমার গাঙ্গুলী, প্রথম আলোর প্রতিনিধি মনিরুল ইসলাম, বন্ধুসভার সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা কলেন বন্ধুসভার বন্ধু কাজী তাহমিনা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইসলামের ইতিহাস বিভাগের সহকারি অধ্যাপক আবদুল গণি, প্রভাষক জসীম উদ্দীন ও রুমি আকতার, বন্ধুসভার সাধারণ সম্পাদক আনন্দ কুমার সরকার, সদস্য নাসরিন শিরিন, জয় খান, মোস্তাফিজুর রহমান, নুরুন্নবী, ইরাবতি, টিপ, জয়া,ধীমান প্রমুখ।

এরআগে গত ২ সেপ্টেম্বর যশোর সরকারি মহিলা কলেজে ‘প্রিয়জনের কাছে চিঠি লেখা প্রতিযোগিতা ও কর্মশালা’ অনুষ্ঠিত হয়। দুইটি কলেজের প্রতিযোগিতা থেকে সেরা ২০ জনকে বাছাই করে আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত্য সংবাদ ও ফিচার লেখা বিষয়ে কর্মশালায় অংশ গ্রহণের সুযোগ দেওয়া হবে। এছাড়া এই ২০জনকে পুরস্কৃত করা হবে। তাদের লেখা চিঠি নিয়ে একটি প্রকাশনাও বের করা হবে।