শেখ হাসিনা মেডিকল বিশ্ববিদ্যালয়: খুলনাবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯ ||

খুলনায় বিভাগে তথা দক্ষিণাঞ্চলের চিকিৎসা সেবা মানুষের দোড়গোড়ায় পৌছিয়ে দেওয়া ও চিকিৎসা ক্ষেত্রে আরও আধুনিকায়নের জন্য এবং চিকিৎসা গবেষণা কে আর উন্নত মানের জন্য বর্তমান সরকারের যুগান্তকারী প্রদক্ষেপ খুলনায় স্থাপনের প্রয়োজনী কার্যক্রম গ্রহণের প্রস্তাবে বিশ্ব শান্তির অগ্রদূত, দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নের রুপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করায় এবং প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের নির্দেশ দেওয়ায় খুলনাবাসীর পক্ষেথেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ও দক্ষিণাঞ্চলের আওয়ামী রাজনীতির অভিভাবক বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ হেলালউদ্দীন এমপি, শেখ সালাহউদ্দীন জুয়েল এমপি কে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিজান, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এড. সুজিত অধিকারী।
খুলনা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ বলেন খুলনাবাসীর দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি ছিলো খুলনায় একটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থ্পন, কিন্তু সেটি আজ প্রধানমন্ত্রী সদয় সম্মতি জ্ঞাপন ও প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের নিদের্শ দেওয়ায় ফলে আলোর মুখ দেখলো। এটা খুলনাবাসী তথা দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার। নেতৃবৃন্দ যথাসম্ভব দ্রুত মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ শুরু হয় বলে তারা আশা প্রকাশ করেন। নেতৃবৃন্দ আর বলেন এই দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নের জন্য একমাত্র আওয়ামী লীগ সরকার কাজ করে। প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের কল্যাণের জন্য বরাবরই দিয়ে গেছেন আর পক্ষন্তরে বিএনপি জোট সরকার খুলনাবাসীকে বঞ্চিত করে গেছেন। এজন্য গত নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের প্রত্যেকটি আসনের প্রার্থীকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করে। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন শিল্পনগরী খুলনাকে দেশের সেরা নগরী হিসেবে ও অর্থনৈতিক অঞ্চল হিসেবে গড়ে তুলতে যা যা করণীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুলনাবাসীর জন্য করবেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি