লেখাপড়াকে শিক্ষার্থীদের নিকট আনন্দময় করে তুলতে হবে: আসাদুজ্জামান বাবু


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯ ||

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় স্টার কিড্স মিলনায়তনে ২০১৮ সালের প্রাথমিক শিক্ষাসমাপনী ও জে.এস.সি.বৃত্তি প্রাপ্ত এবং ২০১৯ সালের জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা পৌরসভার ২ নংওয়ার্ড কমিশনার সৈয়দ মাহমুদ পাপা, ৪ নং ওয়ার্ড কমিশনার কাজী ফিরোজহাসান, এটিএন বাংলার জেলা প্রতনিধি ও ভয়েস অব সাতক্ষীরার সম্পাদক এম. কামরুজ্জামান এবং অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সুপদ কুমার মন্ডল। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্টার কিড্সের পরিচালক এ.টি.এম. আবু হাসান।
সভাপতির শুভেচ্ছা বক্তৃতায় সাতক্ষীরার শিক্ষা জগতের বিশেষ অবদান রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন শিক্ষা মানুষের জন্মগতঅধিকার। তিনি শিক্ষার্থীদের আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে ভবিষ্যতে দেশ পরিচালনা তথা দেশের বিভিন্ন স্তরে অবদান রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
প্রধান অতিথি আসাদুজ্জামান বাবু তার বক্তৃতায় বলেন, লেখাপড়ার পশাপাশি পাঠ্যক্রমের উপর গুরুত্ব দিয়ে লেখাপড়াকে শিক্ষার্থীদের নিকট আনন্দময় করে তুলতে হবে। তিনি শিক্ষার্থীদেরকে সকল প্রকার মাদক থেকে বিরত থাকতে এবং অভিভাবককে তাদের সন্তানের উপর কড়া নজর রাখতে বলেন। স্টার কিড্সের সার্বিক পড়াশোনায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং প্রয়োজনে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি এটিএন বাংলার জেলা প্রতিনিধি এম. কামরুজ্জামান তার বক্তৃতায় সৃজনশীল পদ্ধতির উপর বিশেষ আলোকপাত করেন। তিনি আরও বলেন শিক্ষার্থীদের পুঁথিগত বিদ্যার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলে হবে না। তাদের বিনোদনেও মনোনিবেশ করতে হবে। কোনো শিক্ষার্থী যাতে ইন্টারনেটের অপব্যবহার করে অকালে ঝরে না পড়ে সে বিষয়ে অভিভাবককে কঠোর নজরদারী রাখতে হবে। সবশেষে তিনি সকল শিক্ষার্থীর মঙ্গল কামনা করে পড়াশুনায় মনোযোগী হওয়ার পরামর্শ দেন।
বিশেষ অতিথি সাতক্ষীরা পৌরসভার ২ নংওয়ার্ড কমিশনার সৈয়দ মাহমুদ পাপা তার বক্তৃতায় বলেন, শিক্ষা মানুষের মনোজগতের সন্ধান দেয় এবং ঐশ্বর্যের পথ দেখায়।
৪ নংওয়ার্ড কমিশনার কাজী ফিরোজ হাসান বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে বর্তমান প্রজন্মকে আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে এবং দুর্নীতিমুক্ত ও মাদকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তেহবে।
শিক্ষকদের মধ্যে অত্র কোচিংয়ের যুগ্ম পরিচালক কাজী সাদিকুজ্জামান একজন শিক্ষার্থীর ভবিষ্যতে সফল ও সার্থক মানুষ হওয়ার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পারভেজ ইমাম, সুমাইয় াআজিজ অর্থি, ফারজানা হাসান এশা, জান্নাতুল ফেরদৌস বৃষ্টি, রিফাতা সুফিয়া, জাহিম আনজুম শমি এবং অভিভাবকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ওমর ফারুক, শামীমা আক্তার, পলাশী মন্ডল প্রমুখ। অনুষ্ঠানে মোট ৭৬ জনশিক্ষার্থীকে ক্রেস্ট ও সনদ পত্র প্রদান করা হয়। এরমধ্যে পিইসি ২৩ জন, জে.এস.সি. ২২ জনএবংএস.এস.সি. ৩১ জন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি