বুধহাটায় আছাফুর জিম সেন্টার পরিদর্শনে অধ্যাপক রুহুল হক এমপি

পত্রদূত ডেস্ক: আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা বাজারে প্রতিষ্ঠিত অবসরপ্রাপ্ত আর্মি শেখ আছাফুর জিম সেন্টার পরিদর্শন করেছেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি জিম সেন্টারে উপস্থিত হন। বুধহাটা জিম সেন্টারের সত্ত্বাধিকারী অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য শেখ আছাফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মাহবুবুল হক ডাবলুর পরিচালনায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এমপি প্রতিনিধি শম্ভুজিত মন্ডল, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গফুর, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি এটিএম আক্তারুজ্জামান, যুবলীগ নেতা নুরুজ্জামান জুলু, সাংবাদিক সচ্চিদানন্দ-দে সদয়, রাবিদ মাহমুদ চঞ্চল, মাসুম বাবুল, শেখ বাদশা, ব্যবসায়ী আব্দুল গফুর, অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সার্জেন্ট বরকতউল্লাহ পাড়, আ’লীগ নেতা আব্দুল জলিল ঢালী, যুবলীগ নেতা আবু সাইদসহ আশাশুনি, নলতা ও কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

‘মাদক মুক্ত বাংলাদেশ বিনির্মাণ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গিকার’ সেøাগানকে সামনে রেখে প্রধান অতিথি বলেন, নেশার কবল থেকে যুবসমাজকে দূরে রাখতে খেলাধুলা ও শরীর চর্চার বিকল্প নেই। নানান শারীরিক ব্যাধি থেকে মুক্ত থাকতে নিয়মিত শরীর চর্চা করতে হবে। বুধহাটাবাসীর জন্য তিনি বুধহাটাতে একটি ফিজিওথেরাপি সেন্টার স্থাপনের আশ্বাস প্রদান করেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০১৯ (অনুর্ধ্ব-১৭) এর ফাইনালে শ্রীউলা ইউনিয়ন চ্যাম্পিয়ান ও রানার্সআপ দরগাগাহপুর ইউনিয়ন। খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার বিতরণ ও মাঠে উপস্থিত হাজার হাজার দর্শকদের উদ্দেশ্যে বক্তৃতা দেন অধ্যাপক ডা. আ. ফ. ম. রুহুল হক এমপি।

কালিগঞ্জে ডেঙ্গু পরিস্থিতির অগ্রগতি বিষয়ে জনসচেতনতামূলক পর্যালোচনা ও মতবিনিময় (ভিডিও)

বিশেষ প্রতিনিধি: ডেঙ্গু পরিস্থিতি ও ডেঙ্গু বিস্তার রোধে সার্বিক অগ্রগতি সম্পর্কে জনসচেতনতামূলক পর্যালোচনা এবং মতবিনিময় সভা বৃহস্পতিবার বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় অফির্সার্স ক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল। তিনি বলেন, ডেঙ্গু সাতক্ষীরা জেলায় ব্যাপকহারে ছড়িয়ে পড়েছে যা এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। আজও কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩৭ জন ডেঙ্গু পরীক্ষা করিয়েছে তাদের মধ্যে ৮ জন শনাক্ত হয়েছে। এমতাবস্থায় প্রত্যেককে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে। শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা মানুষ গড়ার কারিগর। তাই ব্যক্তিগত দায়িত্ববোধ থেকে প্রত্যেকে বিদ্যালয় ছুটির পর বিদ্যালয়ের ক্যাচমেন্ট এলাকায় বাড়ি বাড়ি সচেতনতার লক্ষ্যে কাজ করুন।

 

উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মী মাসুম বিল্লাহ’র সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সাতক্ষীরা-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এইচএম গোলাম রেজা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরদার মোস্তফা শাহিন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প কর্মকর্তা ডা. শেখ তৈয়েবুর রহমান, থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেলোয়ার হোসেন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দিপালী রাণী ঘোষ প্রমুখ। এসময় বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানে বিষ্ণুপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ রিয়াজ উদ্দিন, কুশুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ এবাদুল ইসলাম, নলতা ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, তারালী ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হোসেন ছোট, ধলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান গাজী শওকত হোসেন, বড়শিমলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আন্তজার্তিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত গাজী মিজানুর রহমান, শ্রীকলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনন্দ কুমার দে, কালিগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিন্দ্র নাথ বাছাড়, মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুব্রত কুমার বৈদ্যসহ বিভিন্ন মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর শেখ নুরুল হুদা আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি: জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর শেখ নুরুল হুদাকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে সাতক্ষীরা শহরের চৌরঙ্গি মোড়স্থ নিজ বাসা থেকে সাতক্ষীরা সদর থানা পুলিশ তাকে আটক করে। পরে তাকে সদর থানা হেফাজাতে রাখা হয়। শেখ নুরুল হুদার স্ত্রী পপি বেগম জানান, সদর থানার এসআই নাসির উদ্দীন তার স্বামীকে আটক করে নিয়ে গেছে। এসআই নাসির উদ্দীন জানান, আটককৃত শেখ নুরুল হুদার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরওয়ানা রয়েছে। সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান শেখ নুরুল হুদার আটকের বিষয়টা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান আটককৃত শেখ নুরুল হুদার বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট রয়েছে।

কালিগঞ্জে মোটরসাইকেল ও সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত এক

বিশেষ প্রতিনিধি: কালিগঞ্জের মোটরসাইকেল ও বাই-সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে বদর উদ্দিন গাজী (৭০) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। তিনি উপজেলার ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের রতেœশ্বরপুর গ্রামের মৃত মনির উদ্দিনের ছেলে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে কালিগঞ্জ-মুন্সিগঞ্জ সড়কের পিরোজপুর মোড় সংলগ্ন এলাকায়। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বদর উদ্দিন গাজী নিজ বাড়ি থেকে বাই-সাইকেলে কালিগঞ্জে আসছিলেন। সকাল ১০টার দিকে তিনি পিরোজপুর নামক স্থানে পৌছালে বিপরীতমূখী একটি মোটর সাইকেলের সাথে তার সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এঘটনায় বদর উদ্দিন গাজী গুরুতর আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায় মোটর সাইকেল চালক। স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় বদর উদ্দিনকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাতপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে খুলনা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। খুলনায় যাওয়ার পথে বেলা ২টার দিকে মারা যান বদর উদ্দিন গাজী।

 

তালায় কপোতাক্ষ অববাহিকা পানি কমিটির সভা

তালা (সদর) প্রতিনিধি: তালায় বৃহস্পতিবার সকালে তালা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মহাবিদ্যালয়ে কপোতাক্ষ অববাহিকা কমিটির ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। কপোতাক্ষ অববাহিকা পানি কমিটির সভাপতি এম ময়নুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উত্তরণ এর প্রকল্প সমন্বয়কারী জাহিন শামস্ সাক্ষর। উত্তরণ কর্মকর্তা দিলীপ সানার পরিচালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন তালা সদর ইউপি চেয়ারম্যান সরদার জাকির হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার মো. আলাউদ্দীন জোয়ার্দার, কপোতাক্ষ অববাহিকা পানি কমিটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রেজাউল করিম, সহ-সভাপতি মোস্তারী সুলতানা পুতুল, সদস্য অধ্যাপক অচিন্ত্য সাহা, শেখ আব্দুল হান্নান, মীর জিল্লুর রহমান, গাজী জাহিদুর রহমান, মো. সফিকুল ইসলাম, আশরাফুন নাহার আশা, মঞ্জুয়ারা বেগম, জেবুন্নেছা খানম, মোড়ল আব্দুস শুকুর, মোছা. এসনেয়ারা খানম, রবীন্দ্র নাথ কর্মকার, অধ্যাপক নন্দী দিপঙ্কর, অজিত সরকার, সাবিনা ইয়াসমিন, ঝর্না রানী মন্ডল প্রমুখ।

সভায় কপোতাক্ষ নদীতে চলমান পলির অবক্ষেপন তুলে ধরে করণীয় নির্ধারণ, কপোতাক্ষ নদের ২য় ফেইজের প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যক্রম শুরু এবং কপোতাক্ষ নদের ক্রসড্যাম স্থাপনে নির্দিষ্ট সময়মতো বাস্তবায়নের বিষয়টি উঠে আসে। পাশাপাশি কপোতাক্ষ পাড়ের চলমান টিআরএম এর সুষ্ঠু বিল ব্যস্থাপনাসহ শিবসা নদীর অববাহিকায় টিআরএমকে যুক্ত করে প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য সভায় গুরুত্ব আরোপ করা হয়।

তালা মাগুরায় ডায়াবেটিক সচেতনতায় ফ্রি ডায়াবেটিক পরীক্ষা

তালা (সদর) প্রতিনিধি: ‘ডায়াবেটিক ও উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখুন, হৃদরোগ ও ব্রেনস্ট্রোকের ঝুকি কমান’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে তালায় বৃহস্পতিবার বিকালে মাগুরায় পীরশাহা জয়নুদ্দিন দাখিল মাদ্রাসায় ডায়াবেটিক সচেতনতায় ফ্রি ডায়াবেটিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তালা ডায়াবেটিক সমিতি এবং ন্যাশনাল ডায়াবেটিক ফাউন্ডেশনের আয়োজনে মাগুরা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুনিল কুমার দাশের সার্বিক পরিচালনায় ফ্রি ডায়াবেটিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, তালা সদর প্রেসক্লাবের সেক্রেটারী সাংবাদিক আকবর হোসেন, মাগুরা যুবলীগের সভাপতি আতাউর রহমান, প্রাক্তন মেম্বর খান শওকত আলী, ল্যাব টেকনোলজিস্ট আলমগীর হোসেন, সহকারী অভিজিৎ হালদার, আজমিরা খাতুন, শেখ আবু হাসানপ্রমুখ। ১০৬ জনের ফ্রি ডায়াবেটিক পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে ৪৪ জনের ডায়াবেটিক রোগের আলামত পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে তালা ডায়বেটিক সমিতির পরিচালক ডাক্তার শেখ শহিদুল্লাহ বলেন, ডায়াবেটিক সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করায় মুলত আমাদের উদ্দেশ্য, ডায়াবেটিক ও উচ্চ রক্তচাপ হলে নানাবিধ রোগ বাসা বাধে, এর থেকে পরিত্রান পেতে হলে, ধুমপান তামাক বর্জন, নিয়মিত ব্যায়াম করা, তৈল চর্বি খাবার কম খাওয়া এবং অতিরিক্ত মানুষিক চাপ হতে মুক্ত থাকতে পারলে এই রোগ হতে প্রতিরোধ করা যাবে। অনেক সময় মানুষ নিজের অজান্তে ডায়াবেটিক আক্রান্ত হচ্ছে। প্রতিরোধ না করার ফলে মৃত্যুর মুুখে ঢলে পড়ছে। এই সমস্ত বিষয় অনুধাপন করেই আমরা সমিতির মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করছি।

আশাশুনিতে সিবিও এন্ড ডিপিও নেটওয়ার্কিং সভা

নিজস্ব প্রতিনিধি: আশাশুনী উপজেলায় সিবিও এন্ড ডিপিও নেটওয়ার্কিং সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় উপজেলা অডিটোরিয়াম মিলনায়তনে উপজেলা পর্যায়ে সিবিও এন্ড ডিপিও সদস্যদের নেটওয়ার্কিং সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা।

সমতা প্রকল্পের আওতায়, দাতা সংস্থা (ডিএফএটি) অর্থায়নে ও ডিআরআর এ’ বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ও সমাজে পিছিয়ে পড়া ব্যক্তিদের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অর্ন্তভূক্তি ও সেবা প্রাপ্তি বাড়াতে সমতা প্রকল্পের অধীনে দিনব্যাপি নেটওয়ার্কিং সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন ডা. অরুন কুমার ব্যানার্জী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সমাজ সেবক ও দরগাহপুর সিবিও এর সভাপতি শেখ মতলেবুর রহমান। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, ডিআরআরএ’র ডিআইটি নীলৎপল মন্ডল, ডিআইএফ সিরাজুল ইসলাম, সহকারী ডিআইএফ আক্তারুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান ও ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের প্রোগ্রাম অফিসার হারুন অর-রশিদ। উক্ত নেটওয়াকিং মিটিং এ প্রতিবন্ধী ব্যক্তি, সেলফ হেল্প গ্রুপের সদস্য ও সিবিও এর নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

কলারোয়ার জয়নগর একজন দিনমজুরের অর্থায়নে তৈরি হচ্ছে ৫১টি প্রতিমা

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলারোয়ার জয়নগর ইউনিয়নের উত্তর জয়নগর গ্রামে ৫১টি প্রতিমা তৈরী করে এলাকায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন আনন্দ দাস। আসন্ন দুর্গোৎসব উপলক্ষে উপজেলার উত্তর জয়নগর গ্রামের বাসিন্দা বিষ্ণুপদ দাসের ছেলে আনন্দ দাস নিজ অর্থায়নে নিজের বাড়ি চত্বরে দূর্গা মায়ের প্রতিমাসহ ৫১ প্রতিমা তৈরী করেছেন। এই প্রথম ব্যক্তিগত উদ্যোগে ও অর্থায়নে জয়নগর ইউনিয়নে ৫১টি দেব-দেবির প্রতিমা তৈরী করতে দেখা গেছে বলে স্থানীয়রা জানান।

আনন্দ দাস জানান, ‘এই ৫১টি দেব-দেবির প্রতিমা তৈরীর সিদ্ধান্ত ছিলো তার খামখেয়ালী। তিনি একজন দিনমজুর। ভিটা বাড়ি ছাড়া মাঠে তার কোন ফসলি জমি নাই। ২০২০ সালে ১শত প্রতিমা তৈরীর প্রত্যাশা করছেন তিনি।’

তিনি আরো জানান, ‘৫১টি প্রতিমা তৈরীর জন্য ভাস্করকে দিতে হচ্ছে ১লক্ষ টাকার মতো। ডেকোরেশনের জন্য ব্যয় হচ্ছে ৫০ হাজার টাকা। পুরোহিতকে দিতে হচ্ছে ২৫ হাজার টাকা। সবমিলিয়ে ২লক্ষ টাকার বেশি ব্যয় হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।’

প্রতিমা তৈরীর কাজে নিয়োজিত শ্যামনগরের ভাস্কর কৃষ্ণ সানা জানান, ‘তিনি মনের মাধুরি মিশিয়ে হাতের ছোয়ায় একে একে ৫১টি দেব-দেবির প্রতিমা তৈরীর কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।’

তিনি আশা করছেন, ‘প্রতিমাগুলো মানুষের দৃষ্টিনন্দন হবে। পূজা শুরুর আগেই প্রতিমা তৈরীর কাজ সম্পন্ন হবে।’

গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়নের সম্মেলন ২১সেপ্টেম্বর

নিজস্ব প্রতিনিধি: সাতক্ষীরায় বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়নের ত্রি-বর্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামি ২১ সেপ্টম্বর-১৯ তারিখ বেলা ১১টায় শিল্পকলা একাডেমি অডিটোরিয়ামে ওই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন জেলা পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়নের জেলা কমিটির সভাপতি শহিদুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়নের সিনিয়র কার্যকরী সভাপতি শেখ আলী হোসেন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কলারোয়ায় দলিত পরিষদের মতবিনিময় সভা

নিজস্ব প্রতিনিধি: বাংলাদেশ দলিত পরিষদ (বিডিপি) পুর্নগঠনের লক্ষ্যে কলারোয়ায় মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ হলরুমে এ উপলক্ষে প্রোমোটিং রাইটস অফ দলিত এন্ড এক্সক্লুডেড পিপলস প্রজেক্ট এর আওতায় মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। কলারোয়া উপজেলা দলিত পরিষদের সভাপতি জয়দেব দাসের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনটির  সাতক্ষীরা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক গৌরপদ দাস। অনুষ্ঠানে প্রদীপ প্রকল্প পরিত্রানের প্রোগ্রাম অফিসার উজ্জল দাস, উপজেলা দলিত পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ বিশ^াস প্রমুখ উপস্থিত ছিরেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন পরিত্রানের প্রদীপ প্রকল্পের ফিল্ড ফ্যাসিলিটেটর আল আমিন। সভায় কলারোয়া দলিত পরিষদের ৩১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে আছেন সভাপতি- জয়দেব দাস জয়, সহ-সভাপতি আনন্দ সরকার, সিবাষ্টিন মিত্র, সর্মিলা রায়, সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ বিশ^াস, সহ-সাধারণ সম্পাদক অরুন বিশ^াস, সহ-সাধারণ সম্পাদক উত্তম দাস, কোষাধ্যক্ষ উত্তম কুমার দাস, আইন বিষয়ক সম্পাদক রণজিৎ মন্ডল, সাংগঠনিক সম্পাদক রামপ্রসাদ দাস, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রণজিৎ দাস, প্রচার সম্পাদক সন্তোষ সরকার, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা কল্যাণী দাস, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সনজিত দাস, দপ্তর সম্পাদক সুজিত কুমার দাস প্রমুখ।

ইন্দো-বাংলা এডুকেশন সামিটে অংশ নিতে ভারত গেলেন কলারোয়ার প্রধান শিক্ষক চাঁন্দু

নিজস্ব প্রতিনিধি: ইন্দো-বাংলা এডুকেশন সামিট-২০১৯ এ অংশ নিতে ভারত গেছেন কলারোয়ার ঐহিত্যবাহী সোনাবাড়ীয়া সম্মিলিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আখতার আসাদুজ্জামান চাঁন্দু। কোলকাতার শান্তি নিকেতনে বাংলাদেশ ভবনে ১৪ ও ১৫ সেপ্টেম্বর এ সামিট অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ-ভারতের শিক্ষা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা সামিটে অংশ নিচ্ছেন। আখতার আসাদুজ্জামান চাঁন্দু জানান, দু’দেশের শিক্ষার মানোন্নয়নে এ ধরণের আয়োজন। একই সঙ্গে তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাকে এ সামিটে মনোনীত করার জন্য। উল্লেখ্য, আখতার আসাদুজ্জামান চাঁন্দু ১৯৯৭ সালে প্রধানমন্ত্রী পদক পান। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মোবাইল ট্রেনিং রিসোর্চ টীমের বিজ্ঞান বিষয়ক বিশেষজ্ঞ শিক্ষক হিসেবে দেশের বিভিন্ন উপজেলায় পিছিয়ে পরা স্কুল-মাদরাসার মান্নোয়নের কাজ করেন। সৃজনশীল প্রশ্নপত্রের বিজ্ঞান বিষয়ের মাষ্টারট্রেইনার ও সৃজনশীল প্রশ্নপত্রের শিক্ষক প্রশিক্ষণ মেন্যুয়াল তৈরিতে বিজ্ঞান বিষয়ে কাজ করেন। আখতার আসাদুজ্জামান চাঁন্দু উপজেলা স্কাউটসের সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি। দুর্নীতি প্রতিরোধে উপজেলা পর্যায় দুর্নীতি দমন কমিশন কর্তৃক প্রেরিত বিভিন্ন কর্মসূচী সফলতার সঙ্গে তার নেতৃত্বে সম্পন্ন করায় কলারোয়া উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি ২০১৭ সালে খুলনা বিভাগে শ্রেষ্ঠত্বের তালিকায় ৩য়, এবং ২০১৮ সালে ১ম স্থান অধিকার করেন। ২০১৬ ও ২০১৮ সালে তিনি উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক নির্বাচিত হন। ব্যক্তিগত জীবনে আখতার আসাদুজ্জামান চাঁন্দু ২ কন্যা সন্তানের জনক। কন্যাদের একজন যারীন তাসনীম প্রীমা মাধ্যমিক পর্যায়ে স্কাউটসে সর্বোচ্চ খেতাব প্রেসিডেন্ট স্কাউটস অ্যাওয়ার্ড-২০১৫ এবং কনিষ্ঠ কন্যা রাইসা মাহজাবীন প্রভাব প্রাথমিক স্তরের কাব স্কাউটসে সর্বোচ্চ খেতাব শাপলা অ্যাওয়ার্ড-২০১৮ পাওয়ার জন্য মনোনীত হয়েছে। আখতার আসাদুজ্জামান চাঁন্দু ১৯৯৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর সহকারি শিক্ষক হিসেবে সোনাবাড়ীয়া সম্মিলিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করেন। তারপর ২০১১ সালের ৩১ জানুয়ারি তিনি প্রধান শিক্ষক হিসেবে একই প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

কলারোয়ায় এবার ডেঙ্গু আক্রান্ত এক পুলিশ সদস্য

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলারোয়ায় এবার ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন মেহেদী হাসান (৩০) নামের এক পুলিশ সদস্য। কনস্টেবল মেহেদী হাসান কলারোয়ার কয়লা গ্রামের শহিদুল ইসলামের পুত্র। তিনি রাজারবাগ পুলিশ লাইনে কর্মরত। বর্তমানে তিনি কলারোয়া হাসপাতালের পুরুষ ওয়ার্ডের ৫নং বেডে চিকিৎসাধীন।

ডেঙ্গু আক্রান্ত মেহেদি হাসান জানান, গত ৪ সেপ্টেম্বর ১০ দিনের ছুটিতে বাড়িতে আসেন তিনি। ৭ সেপ্টেম্বর সে জ্বর সহ বিভিন্ন সমস্যা অনুভব করলে সাতক্ষীরায় একটি ল্যাবে শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার ডেঙ্গু ধরা পড়লেও সে নিজ বাড়ি কলারোয়ার কয়লায় অবস্থান করছিলো। কিন্তু অবস্থার অবনতি হলে বৃহস্পতিবার কলারোয়া হাসপাতালে ভর্তি হন।

কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা ডা. কামরুল ইসলাম জানান- মেহেদী হাসান নামে একজন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী বৃহস্পতিবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এনিয়ে কলারোয়া হাসপাতালে মোট ২০জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগি ভর্তি হন। এরমধ্যে ১৯ জনই সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

কলারোয়ার কেঁড়াগাছিতে হরিদাস ঠাকুরের জন্মভিটায় নির্য্যাণ তিথি উৎসব উদযাপন

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলারোয়ার কেঁড়াগাছিতে নামাচার্য্য শ্রীশ্রী ব্রহ্ম হরিদাস ঠাকুরের জন্মভিটা আশ্রমে দিনব্যাপি নির্য্যাণ তিথি উৎসব উদযাপন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আশ্রম প্রাঙ্গনে অধিবাস কীর্তনের মধ্যে দিয়ে নির্য্যাণ তিথির বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অধিবাস কীর্তন পরিবেশন করেন মুরারীকাটির হরিবাসর সম্প্রদায়। দুপুরে অনুষ্ঠিত হয় ভগবত আলোচনা। ভগবত আলোচনা করেন হরিদাস ঠাকুর জন্মভিটা আশ্রমের সেবায়েত সদানন্দ দাস বাবাজি প্রভাস ও বাবু অনুকুল চন্দ্র দাস। আশ্রমের সভাপতি অধ্যাপক কার্ত্তিক চন্দ্র মিত্র জানান, দিনব্যাপী এই অনুষ্ঠানে অসংখ্য ভক্তের সমাগম ঘটেছে। ভক্তদের আগমনে আশ্রম প্রাঙ্গন মুখরিত হয়ে ওঠে। আশ্রমের সাধারণ সম্পাদক সন্দীপ রায় জানান, অনুষ্ঠানের সকল ভক্তদের জন্য প্রসাদের ব্যবস্থা করেন তুলশীডাঙ্গার পরিতোষ ঘোষ। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মনোরঞ্জন সাহা, সাধারণ সম্পাদক সিদ্ধেশ্বর চক্রবর্তী, কলারোয়া থানার সেকেন্ডে অফিসার রাজ শেখর পাল, এসআই সুবীর ঘোষ, কলারোয়া রূপালী ব্যাংকের ম্যানেজার আহসান কবির, পল্লীবিদ্যুতের রাজপুর সাবজোনাল অফিস ইনচার্জ সন্তোষ রায়, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অসীম পাল, রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, সন্তোষ পাল, কলারোয়া নিউজের সহ.সম্পাদক  মিলন দত্ত, সাংবাদিক অহিদুজ্জামান খোকা, গোপাল ঘোষ বাবু, হোসেন আলী, উজ্জ্বল দাশ, উত্তম পাল, আনন্দ ঘোষ, সুনিল রায়, গীতা রানী মিত্র, নিখিল অধিকারী, উত্তম ঘোষ, পরিতষ ঘোষ, কলারোয়া পাইলট হাইস্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুর রকিব প্রমুখ।

কলারোয়ায় পৃথক অভিযানে ৪ব্যক্তি আটক: ফেন্সিডিল উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলারোয়ায় পৃথক অভিযানে ৪ব্যক্তিকে পুলিশ আটক করেছে। এদের মধ্যে নারী-শিশু নির্যাতন মামলায় একজন, ওয়ারেন্টভূক্ত দু’জন ও মাদক ব্যবসায়ী একজন। উদ্ধার করা হয়েছে ১০৪ বোতল ফেনসিডিল।

বুধবার দিবাগত রাতে পৃথক স্থান থেকে পুলিশ তাদের আটক করে। আটককৃতরা হলো, কলারোয়া বাজারের মৃত শেখ আসাদুর রহমান বাবলার পুত্র নারী-শিশু নির্যাতন দমন মামলার আসামি আজমল হোসেন হৃদয় (১৯), পৃথক মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত আসামি ঝিকরা গ্রামের মৃত আব্বাস মোড়লের পুত্র শওকত মোড়ল (৪৯), গণপতিপুর গ্রামের সবুর আলীর পুত্র রফিকুল ইসলাম এবং হিজলদী গ্রামের আমজেদ কারিগরের পুত্র নাজমুল ইসলাম (২৮)। থানা সূত্র জানায়, পুলিশের পৃথক টিম কাজিরহাট এলাকা থেকে হৃদয়, ওয়ারেন্টভূক্ত আসামিদ্বয়কে তাদের বাড়ি থেকে এবং নাজমুলকে তার বাড়ি থেকে ১০৪ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক করে।

কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মুনীর-উল-গীয়াস জানান, আটককৃতদের বৃহষ্পতিবার সাতক্ষীরার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বিনেরপোতা শালিখা নদী হত্যা করে মাছ চাষ 

নিজস্ব প্রতিনিধি: সদরের বিনেরপোতা শালিখা (দলুয়া) নদী দখল করে নেটপাটা ও বেড়িবাধ দিয়ে মৎস্য চাষ করছে একটি প্রভাবশালী মহল। বিনেরপোতা নদীর সম্মুখ হতে কয়েক কিলোমিটার নদী খন্ড খন্ড করে দখল করে একাধিক ব্যক্তির অবৈধভাবে বরাদ্দ দিয়ে একটি প্রবাহমান নদীকে তিলে তিলে হত্যা করা হয়েছে। কোথাও খাল কোথাও ড্রেন আবার কোথাও ব্যক্তিগত সম্পত্তির মতো মনে হলেও আসলে এটি এক সময়ের প্রমত্তা শালিখা নদী (বিনেরপোতায় বেতনার সাথে সংযুক্ত ছিল)। বিনেরপোতা গোপীনাথপুর এলাকার কয়েক কিলোমিটার এলাকায় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি আরো প্রভাবশালী একজনের কাছ থেকে এগুলো ইজারা নিয়েছেন। যদিও সরকারি হিসেবে এটি ইজারা দেয়া নেই। এছাড়া নদীর পাড়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায় বেশ কয়েকজন ভূমিদস্যু পজেশন বিক্রি করেছেন। যেখানে ইতিমধ্যে কয়েকটি পাকা বাড়িও তৈরী হয়ে গেছে।

সরেজমিনে পরিদর্শনে গেলে এলাকাবাসী জানান, নগরঘাটার সৌরভ, বিনেরপোতার গফুর, নুরুলসহ কয়েকজন ব্যক্তি নদীর কয়েক কিলোমিটার অবৈধভাবে দখল করেছেন। তবে এটি মূলত দখল করেছে অত্র এলাকার চিহ্নিত চোর, ডাকাতদের মদদদাতা জিয়া। জিয়া ওই নদী দখল করে অন্যান্যদের কাছে অর্থের বিনিময়ে খন্ডখন্ড করে অবৈধভাবে বরাদ্দ দিয়েছেন বলে এলাকাবাসী দাবি করেন।

এভাবে নদীর অংশ দখল করে মৎস্য চাষ করায় হাজার হাজার বিঘা জমির পানি নিস্কাশন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে এবং সদর উপজেলার লাবসা, ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন বিস্তীর্ণ এলাকা সামান্য বৃষ্টিতে স্থায়ী জলাবদ্ধতার কবলে পড়ছে। কিন্তু জিয়া প্রভাবশালী হওয়ায় তার বিরোধীতা করার সাহস নেই কারো।

তারা আরো জানান, জিয়া একসময়ে বিএনপি করতো। বর্তমানে ভোলপাল্টে এখনো আওয়ামী লীগার হয়েছেন। তিনি অত্র এলাকার চিহ্নিত চোর,ডাকাতদের নিয়ন্ত্রণ করে। রাতে তার ডেরায় বসে মাদকের আসর। তার রয়েছে একটি সংঘবদ্ধ বাহিনী। ইতোপূর্বে তুচ্ছ ঘটনায় প্রবীন ভূমিহীন মুক্তিযোদ্ধা সাবান আলী ও তার সন্তানদের কুপিয়ে হত্যার চেষ্টাও করেছিলো জিয়া এবং তার বাহিনী। এঘটনায় আদালতে একটি মামলাও চলমান রয়েছে।

স্থানীয়দের পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাতক্ষীরা সদর বরাবর গণস্বাক্ষর করে দরখাস্ত দেয়া হয়েছে। দু:খজনক হলেও সত্য, ইউএনও মহোদয় এসব অবৈধ দখল উচ্ছেদে কোন ব্যবস্থাই গ্রহণ করেননি। বরং অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় ভূমি অফিসের কর্মকর্তাদের যোগসাজশেই এই দখলদারিত্ব চলে আসছে। সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও কতিপয় ভূমিদস্যু যে সকল সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আর্থিক সুবিধা দিয়ে নির্বিঘ্নে নদীটিকে তিলে তিলে হত্যা করছে তাদের উভয় পক্ষের বিরুদ্ধে এখনও কোন শাস্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না?

‘নদী হত্যা’ শব্দটি সচেতনভাবে ব্যবহারের কারণ, দেশের সর্বোচ্চ আদালত নদীকে জীবন্ত সত্তা হিসেবে ঘোষণা করেছেন। এই নদীর হত্যাকারীদের এবং তাদের সহযোগীদের অবিলম্বে বিচারের আওতায় আনতে হবে।

এদিকে জিয়া এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নদীর দুই মাথা বন্ধ থাকায় এলাকার গরিব মানুষগুলো খন্ড খন্ড করে মাছ চাষ করে। এছাড়া বাঁধ কেটে দিলে উল্টো নদীর পানি এদিকে প্রবেশ করবে। তাই ফেলে না রেখে মাছ চাষ করা হচ্ছে।

অন্যদিকে বিনেরপোতা এলাকার কিছু সচেতন মহলের আহ্বানে নাগরিক আন্দোলন মঞ্চ সাতক্ষীরার সভাপতি এড. ফাহিমুল হক কিসলু, সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান মাসুম, প্রচার সম্পাদক আমির হোসেন খান চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক এম.বেলাল হোসাইনসহ নাগরিক নেতৃবৃন্দ উক্ত এলাকা পরিদর্শন করেন। এবিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেবাশিষ চৌধুরী বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যক্রম পরিচালনা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সেখানে অভিযান পরিচালনা করা হবে।