কয়রায় প্রতারণার মাধ্যমে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯ ||

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি: খুলনার কয়রাসহ বিভিন্ন জায়গা থেকে তৌহিদুর নামে এক ব্যক্তি প্রতারণা মূলকভাবে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেছে বলে তথ্য পাওয়া গেছে। জানা যায়, কয়রা উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নে মহারাজপুর গ্রামের মো. করিম মোল্য¬ার পুত্র মো. তৌহিদুর রহমান মানুষের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপন করে লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারণায় হাতিয়ে নেওয়াসহ বিভিন্ন ব্যাংকের কাছ থেকে টাকা লোন নিয়ে পরিশোধ না করায় আদালতে মামলা হয় বলে জানা গেছে। জানা যায়, তোহিদুর রহমান কয়রার শরিফুল আলমের কাছ থেকে ৬ লক্ষ, কয়রার মিজনুর রহমানের কাছ থেকে ৫ লক্ষ, খুলনার সরোয়ারের কাছ থেকে ১ লক্ষ, খুলনার আক্তারুজ্জান নান্নু কাছ থেকে ১০ লক্ষ টাকা, ওসিখারের কাছ থেকে ২ লক্ষ হাতিয়ে নিয়েছে বলে তারা জানান। এছাড়া তোহিদুর রহমান রুপালি ব্যাংক খুলনা করর্পোট শাখা থেকে ৫ লক্ষ ৫০০০০ হাজার টাকা, সোনালী ব্যাংক কালিয়া শাখা থেকে ৪ লক্ষ ৫০০০০ হাজার, ব্যুরো বাংলাদেশ কালিয়া শাখা থেকে ১ লক্ষ টাকা ছাড়াও বিভিন্ন ব্যাংকের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা লোন নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে তোহিদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করতে তার মুঠো ফোনে ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তোহিদুর রহমান নড়াইল কালিয়া, মধুমতি কারিগরি ও বাণিজ্যিক মহাবিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিভাগে শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন। এ ব্যাপারে তোহিদুর রহমানের কলেজের অধ্যক্ষ রাধুলাল মুখার্জীর কাছে তোহিদুর রহমান সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তোহিদুর রহমান বেশ কিছু দিন যাবত অনিয়মিত। বিগত ২ মাস কলেজে আসেন না। আমরা কয়েকবার নোটিশ পাঠিয়েছি, শুনেছি কিছু লোক তার কাছে টাকা পাবে। আমার কাছে বিভিন্ন সময় তার ব্যাপারে জানতে চেয়েছে। তার নামে মামলাও হয়েছে। বর্তমানে তিনি কোথায় থাকেন, কি করেন তা আমার জানা নেই।