তালা হাসপাতালে দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক সর্পদংশন সচেতনতা দিবস পালিত


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯ ||

তালা (সদর) প্রতিনিধি: ‘সর্ব দংশনে ওঝা নয়, হাসপাতালেই চিকিৎসা হয়’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে তালা হাসপাতালে মঙ্গলবার দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক সর্পদংশন সচেতনতা দিবস-২০১৯ উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
র‌্যলিটি তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হতে বের হয়ে বিভিন্ন স্থান প্রদক্ষিণ শেষে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হলরুমে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। তালা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাক্তার মীর আবু মাউদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তালা উপজেলা চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেøেক্সর আয়োজনে, স্বাস্থ্য পরিদর্শক মীর মহাসীন হোসেনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার রাজিব সরদার। নন কমিউনিকেবল ডিজিজ কন্ট্রোল প্রোগামের সচেতনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, ডাক্তার রওশন দায়েমী, প্রধান সহকারী মো. হাফিজুর রহমান, তালা সদর প্রেসক্লাবের সেক্রেটারী সাংবাদিক মোঃ আকবর হোসেন, সেনেটারী ইন্সেপেক্টর, ওঝা এসএম কামাল, নার্স মাহমুদা, নাছিমা, অফিস সহকারী আজিজুল ইসলামপ্রমুখ। এর আগে ১৯ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক সর্বদংশন দিবস উপলক্ষে তালা উপজেলায় সকল (৩৭টি কমিউনিটি) ক্লিনিকে এ দিবসটি পালিত হয়।
এ বিষয়ে, ওঝা এসএম কামাল বলেন, ওঝারা সঠিকভাবে চিকিৎসা দিতে পারেনা। অনেকগাছ আছে যা দ্বারা চিকিৎসা করা যায়। তবে সেটা বেশিরভাগ ওঝা জানেনা। এতে উপকারের চেয়ে ক্ষতি বেশী হয়। সেই জন্য আপনাদের কাহারো সাপে কামড়ালে ওঝার কাছে না গিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা করাবেন। তাতে বেশি জীবনের ঝুঁকি কম থাকে।
এ বিষয়ে হাসপাতালের টিএইচএ ডাক্তার মীর আবু মাউদ বলেন, দিবসটি উপলক্ষ্যে মানুষকে সচেতন করতে উপজেলা ব্যাপি মাইকিং করা হয়েছে। যাতে কাউকে সাপে কামড়ালে ওঝাকে না ডেকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। তিনি বলেন, বিষাক্ত সাপে কামড়ালে এন্ট্রিভেনাস নামক ইনজেকশন দিয়ে হয়। যা সচারচার পাওয়া যায় না। বিশেষ করে জেলা সদর হাসপাতাল গুলোতে থাকে। তিনি আরও বলেন, রাতে চলাফেরা করার সময় লাইট ব্যবহার করবের। হাঁস, মুরগী নিয়ে একই জায়গায় ঘুমাবেন না। মশারী টানিয়ে ঘুমাবেন। বাড়ি ঘর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখবেন। মাটিতে বা ফ্লোরে ঘুমাবেন না। তাহলে অনেকটা বিপদ এড়ানো সম্ভব।