আজ পর্যটন দিবস: জেলায় ইকোট্যুরিজম সেন্টারগুলোকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হচ্ছে নতুন কর্মসংস্থান


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯ ||

আসাদুজ্জামান সরদার ও পীযূষ বাউলিয়া পিন্টু: আজ পর্যটন দিবস। নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে জেলার পালিত হবে এই দিবসটি। সাতক্ষীরা সরকারি বেসরকারিভাবে গড়ে উঠেছে অনেক ট্যুরিজম সেন্টার। এসব পর্যটন সেন্টারের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হচ্ছে অনেক মানুষের। এসবের মধ্যে আকাশলীনা ইকোট্যুরিজম সেন্টারটি সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।
এছাড়াও রূপসী দেবহাটা ম্যানগ্রোভ পর্যাটন কেন্দ্র, খোলা জানালা ইকোপার্ক, নিলিমা ইকোপার্ক, মোজাফ্ফর গার্ডেন, উড়াল উড়াল মন ট্যুরিজম, কারামোরা ম্যানগ্রোভ ভিলেজসহ বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্রগুলোও দর্শণার্থীদের ভিড় দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।
বিশেষ করে সুন্দরবনের পাদদেশে ২০০ বিঘা জমির উপর গড়ে উঠা আকাশলীনা ইকোট্যুরিজম সেন্টারের সুন্দরবনে যাবতীয় জীব-বৈচিত্র, আব্দুস সামাদ মিউজিয়ামে সংরক্ষিত বিরল প্রজাতির বিভিন্ন প্রকার মাছ ও জিব জন্তুর নমুনা মুগ্ধ হচ্ছেন সকলে। এর মাধ্যেমে বিভিন্ন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হচ্ছে।
মুন্সিগঞ্জ এলাকার অসীত মন্ডল বলেন, আগে সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীল ছিলাম। কিন্তু আকাশলীনা গড়ে উঠার পর এই এলাকায় পর্যটক দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে এই অঞ্চলের মানুষের মধ্যে বিভিন্ন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হচ্ছে।
শ্যামনগর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান বলেন, সুন্দরবন সংলগ্ন আকাশলীনা ইকোট্যুরিজম সেন্টারসহ এই এলাকার পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে দিন দিন ভ্রমণ প্রেমিক দর্শণার্থীদের আকর্ষণ বাড়ছে। এটাকে কেন্দ্র করে অনেক মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে। বর্তমানে আকাশ লীনার উন্নয়নের কাজ চলছে। পর্যটকদের টান আরোও আকর্ষণীয় করে তোলা হচ্ছে আকাশলীনা ট্যুরিজম সেন্টারটি।
জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল বলেন, পর্যটন দিবস উপলক্ষে শুক্রবার সকালে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে র‌্যালিসহ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, আকাশলীনা ইকো ট্যুরিজম সেন্টার, খোলা জানালা ইকোপার্ক, নিলিমা ইকোপার্ক, রূপসী ম্যানগ্রোভ ফরেস্টসহ জেলার সকল ট্যুরিজম সেন্টারগুলোতে উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতিটি উপজেলায় একটি করে ট্যুরিজম সেন্টার তৈরী করা হবে। এই জেলাকে পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতে যা যা করণীয় সব করা হবে।