আশাশুনির পল্লীতে হয়রানি থেকে মুক্তির দাবিতে গ্রামবাসির মানববন্ধন


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯ ||

আশাশুনি ব্যুরো: আশাশুনির পল্লীতে মামলাবাজ জয়নাব ওরফে অফরুনকে গ্রেপ্তার ও নিরীহ জনগণের হয়রানী থেকে রক্ষা পেতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার খাজরা মোল্যা বাড়ি মোড়স্থ বাজার সড়কে এলাকার শতশত নারী পুরুষের অংশগ্রহণে মানববন্ধন চলাকালে রবিউল ইসলাম, রীনা, রহিমা, রূপা দাশ, ছফেদা, মইরুদ্দিন মোল্যা, রহিম মোল্যা, আব্দুল হাকিম মোল্যা, ইয়াকুব আলিসহ অনেকে বলেন, জবেদ মোল্যার স্ত্রী জয়নাব ওরফে অফুরন ও তার স্বামী চিহ্নিত মামলাবাজ ও জমি জবর দখলকারী। ২০০৪ সালে জয়নাব নিজ সন্তান আচড়ে মেরে ফেলে প্রতিপক্ষের ৬ জনকে আসামী করে মিথ্যা মামলা করে বিবাদীদের কাছ থেকে ৪ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়ে মামলা রফাদফা করে নেয়। জমি বিক্রয়ের কথা বলে প্রতিবন্ধী আব্দুর রশিদ গাজীর কাছ থেকে বাজার মূল্যে টাকা নিয়ে ২ আগস্ট’১২ তারিখে ২৩৫১ নং কোবলা দলিল করে দিলেও পরবর্তীতে দেখা যায় রেজিস্ট্রীকৃত ওই সাড়ে ৫ শতক জমি ঈদগাহের নামে। রীনা, রহিমা, রীতা, রূপা ও ছফেদাদেরকে ঘর পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে টাকা নিলেও পরবর্তীতে কলা দেখিয়ে তা দেয়নি। মইরুদ্দির পুকুর জবর দখল করেছে, রবিউলের মৎস্য ঘের জবর দখল করবে বলে হুমকী দিচ্ছে। সে এলাকায় অসামাজিক কাজ করলেও কেউ কথা বলতে সাহস পায় না। কথা বললেই মিথ্যা মামলা ও ধর্ষণ মামলার হুমকী দিয়ে থাকে। জয়নাব তার জামাতা রুহুল আমিনকে দিয়ে রহিম মোল্যার বিরুদ্ধে সিআর ১৪৫/১৯ নং মিথ্যা মামলা করেছে। ২০ সেপ্টেম্বর মোল্যা বাড়ি মোড়ের ব্যবসায়ী মনিরুলের দোকানে গিয়ে জয়নাব ও শাহাজাহানসহ অজ্ঞাত কয়েজকজন তার কাছে মাছের ঘের করতে গেলে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। ওই দিন তারা মনিরুলকে ভয় দেখিয়ে দোকানের বাক্সে থাকা ৫০ হাজার টাকা, স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয় এবং এক সপ্তাহের মধ্যে বাকী টাকা গুছিয়ে রাখতে বলে হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়। গত সোমবার মনিরুল নিরুপায় হয়ে তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জয়নাব তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ধর্ষন মামলা করার পায়তারা শুরু করেছে বলে এলাকাবাসী জানান। মিথ্যা মামলাবাজ জয়নাব ও তার স্বামীকে গ্রেপ্তার করে নিরীহ এলাকাবাসীকে তাদের রোষানল থেকে রক্ষার দাবিতে প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।