সুন্দরবনে কোষ্টগার্র্ড- বনদস্যু গোলাগুলি: অস্ত্র গুলি উদ্ধার সহ দুই বনদস্যু আটক, জিম্মি ৩ জেলে উদ্ধার


প্রকাশিত : September 28, 2019 ||

শ্যামনগর সদর প্রতিনিধি: পশ্চিম বনবিভাগের সাতক্ষীরা রেঞ্জের গহিন সুন্দরবনে হলদেবুনিয়া বন অফিস সংলগ্ন আমড়াতলী খালে অভিযান চালিয়ে বনদস্যু সেলিম বাহিনীর দুই সদস্যকে অস্ত্র গুলি সহ আটক করেছে কৈখালী কোষ্টগার্ড সদস্যরা। শুক্রবার গভীর রাতে কোষ্টগার্ড পেটি অফিসার (পিও) আমির হোসেনের নেতৃত্বে সদস্যরা বনদস্যুদের আটক করে। ঘটনাস্থলে জিম্মি ৩ জেলে আবু সাঈদ, আজিবর মোল্যা ও আমিরুল ইসলামকে সেলিম বাহিনী ডেরা থেকে উদ্ধার করে কোষ্টগার্ড। তবে, কোষ্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে বাহিনী প্রধান সেলিম সহ অপর ৩ বনদস্যু বুলবুল, রাম বাবু ও কার্তিক পালিয়ে যায়।
আটক দুই বনদস্যু হলো- কয়রা থানার পাথরখালী গ্রামের ছফেদ আলী গাজীর ছেলে আব্দুল্লাহ গাজী (২৮) ও একই থানার টাউন শ্রীপুর গ্রামের জলিল গাজীর ছেলে মালেক গাজী (২৫)।
পেটি অফিসার আমির হোসেন জানায়, আমড়াতলী খালে বনদস্যু সেলিম বাহিনীর অবস্থান নিশ্চিত হয়ে অভিযান চালানো হয়। ঘটনাস্থলে কোষ্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে সেলিম বাহিনী গুলিবর্ষন করে। আত্মরক্ষার্থে কোষ্টগার্ড পাল্টা গুলি ছোড়ে। উভয় পক্ষের মধ্যে অর্ধশতাধিক রাউন্ড গুলি বিনিময় শেষে সেলিম বাহিনীর ২ সদস্য সহ দুইটি দো নলা বন্দুক, ১টি এক নলা বন্দুক, ২১ রাউন্ড গুলি, ২টি কুড়াল, ১টি দা, ৪টি মোবাইল সেট ও নগদ ১হাজার ৬শত টাকা সহ আনুসাঙ্গিক মালামাল উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত ৩ জেলেকে নিজ নিজ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। অস্ত্র গুলি সহ আটক বনদস্যুদের শ্যামনগর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। শ্যামনগর থানার ওসি নাজমুল হুদা সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটক বনদস্যুদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।