নানা কর্মসূচির মাধ্যমে আর্ন্তজাতিক তথ্য জানার অধিকার দিবস পালন


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯ ||

শনিবার জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এবং ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) সাতক্ষীরার সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক তথ্য জানার অধিকার দিবস ২০১৯ উপলক্ষে র‌্যালি, তথ্য মেলা, আলোচনা সভা, বিতর্ক ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। সকাল ৯.৩০ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে র‌্যালির আয়োজন করা হয়। র‌্যালিটি প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্ত্বরে এসে মিলিত হয়। এ সময় বেলুন উড়িয়ে দু’দিনব্যাপী তথ্য মেলার উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু সাঈদ। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ‘তথ্যের অধিকার, সুশাসনের হাতিয়ার; তথ্যই শক্তি, দুর্নীতি থেকে মুক্তি’ বিষয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু সাঈদ এর সভাপতিত্বে দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সনাক সভাপতি মো. আবুল বাশার (পলটু)। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. রুহুল আমীন, সনাক সদস্য প্রফেসর আব্দুল হামিদ প্রমুখ।

এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (জেনারেল সার্টিফিকেট, ট্রেজারী, রাজন্ব ও আইসিটি) দেওয়ান আকরামুল হক, জেলা সমাজ সেবার সহকারি পরিচালক মো. হারুন-অর-রশীদ, জেলা মহিলা বিষয়কের প্রোগ্রাম াফিসার ফাতেমা জোহরা, শিক্ষা প্রকৌশলের এমএমএ জায়েদ বিন গফুর, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো. রফিকুল ইসলাম, সদর সাবরেজিস্ট্রার মো. রফিকুল ইসলাম, জেলা মৎস দপ্তরের উপসহকারী পরিচালক মশগুল আজাদ, জেলা তথ্য অফিসার মোঃ মোজাম্মেল হক, পওর বিভাগ-১ এর সহকারি প্রকৌশলী শুভেন্দু বিশ^াস, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক দেবহাটা মো. মনিরুজ্জামান, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্য সচিব শেখ মুশফিকুর রহমান মিল্টন, সুশীলনের সহকারী পরিচালক জিএম মনিরুজ্জামান, টিআইবি’র এলাকা ফ্যাসিলিটেটর মো. ইমরান হোসেন, লাইট হাউজের ম্যানেজার মো. সনঞ্জু মিয়া, আশার হোপ ফর দি পওরেষ্ট এর শহর সমন্বয়কারী মৃনাল কুমার সরকারসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তর, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও বেসরকারি উন্নয়ন সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ও প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করেন।

এ দিকে আলোচনা সভা শেষে প্রফেসর আব্দুল হামিদের সঞ্চালনায় ‘তথ্য অধিকার আইনই পারে দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে’ শীর্ষক বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিতর্কে পক্ষ দল হিসেবে সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় এবং বিপক্ষ দল হিসেবে সাতক্ষীরা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় অংশগ্রহণ করে বিজয়ী হয় সাতক্ষীরা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হয়েছে মার্জান বিনতে আমিনউল্লাহ। বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সহকারী কমিশনার (জেনারেল সার্টিফিকেট, ট্রেজারী, রাজন্ব ও আইসিটি) দেওয়ান আকরামুল হক, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. রুহুল আমীন এবং গাভা আইডিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ শিবপদ গাইন। এ সময় বিতর্ক প্রতিযোগিদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু সাঈদ ও সনাক সভাপতি মো. আবুল বাসার (পলটু)। সমগ্র অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন টিআইবি’র এলাকা ব্যবস্থাপক আবুল ফজল মো. আহাদ। প্রেসবিজ্ঞপ্তি