চার দশকে ‘ইত্যাদি’ ধারণ কিশোরগঞ্জের মিঠামইনে


প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯ ||

অনলাইন ডেস্ক: তিন দশক পেরিয়ে চার দশকে পা রেখেছে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’। অনুষ্ঠানের এবারের পর্ব ধারণ করা হয়েছে নৈসর্গিক সৌন্দর্যের নান্দনিক দৃশ্যাবলীতে সাজানো কিশোরগঞ্জের হাওরের মাঝখানে দ্বীপের মতো ভেসে থাকা মিঠামইনের হামিদ পল্লীতে। হাওরের মাঝখানে ছোট্ট এই পল্লীটির চারিদিকে হাজার হাজার নৌকা-ট্রলারের সারি এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের সৃষ্টি করেছিল। হাওর অঞ্চলের জীবন-জীবিকা, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য তুলে ধরে জলে ও ডাঙ্গায় শতাধিক নৌকা রেখে নির্মাণ করা হয় নান্দনিক মঞ্চ।

ইত্যাদি’র নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফাগুন অডিও ভিশনের একজন মুখপাত্র বলেন, ‘ইত্যাদি’ চার দশকে পদার্পণ করেছে। সাধারণ মানুষের সমর্থন, সহযোগিতা, ভালোবাসার কারণেই অনুষ্ঠানটি এই দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে পেরেছে। আমরাও সব সময় বলি ‘ইত্যাদি’ সব বয়সের, সব শ্রেণি পেশার মানুষের প্রিয় অনুষ্ঠান। এতে আমরা সবার কথা বলতে চেষ্টা করি। কারণ দেশ গড়ায় সবার অবদান রয়েছে। আর তাই আমরা ইত্যাদি’কে নিয়ে যাই গ্রামে-গঞ্জে, সাধারণ মানুষের কাছে। স্টুডিওর বাইরে গিয়ে অনুষ্ঠান ধারণের এই ধারণাটিকে এখন অনেকেই গ্রহণ করেছেন। ফলে টেলিভিশন অনুষ্ঠান নির্মাণেও বৈচিত্র্য এসেছে।

 

এবারে কিশোরগঞ্জের মিঠামইনের হাওর অঞ্চলে ধারণকৃত অনুষ্ঠানটি বিষয় বৈচিত্র্য, স্থান নির্বাচন সবদিক থেকেই হয়েছে ব্যতিক্রমী ও উপভোগ্য। গণমানুষের প্রিয় অনুষ্ঠান ইত্যাদি’র এই পর্বটি একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচার হবে আগামী ৪ঠা অক্টোবর রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর। ‘ইত্যাদি’ রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন। আর স্পন্সর করেছে যথারীতি কেয়া কস্‌মেটিকস্‌ লিমিটেড।