দেশে প্রথম বালিকা বিদ্যালয় স্থাপিত হয় রাড়ুলীতে


প্রকাশিত : September 29, 2019 ||

খেশরা (তালা) প্রতিনিধি: উপ-মহাদেশের প্রখ্যাত রসায়নবিদ আচার্য প্রফুল চন্দ্র রায়ের (স্যার পিসি রায়) মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা তার শিক্ষানুরাগী পিতা শ্রী হরিশচন্দ্র রায়। ১ একর ২৫ শতক জমির উপর নির্মিত ভুবন মোহিনী বালিকা বিদ্যালয়। যাত্রা শুরু হয় ৮ জন ছাত্রী নিয়ে যার বর্তমান অবস্থান ২০৮ জন ছাত্রী। ০১-০৯-১৯৮৫ সালে বিদ্যালয়টি এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসাবে স্থান পায়। খুলনা জেলার পাইকগাছা উপজেলা রাড়ুলী ইউনিয়নে রাড়ুলী গ্রামে অবস্থিত রাড়ুলী ভূবন মোহিনী বালিকা বিদ্যালয়। ধারণা করা হয় ভারতের বেথুন কলেজের পর উপ-মহাদেশের দ্বিতীয় নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এ দেশ নারীদের অগ্রাধিকার বাড়াতে আচার্য্য প্রফুল চন্দ্র রায় এর শিক্ষানুরাগী  বাবা হরিশচন্দ্র রায় এই গার্লস স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করেন। উল্লেখ্য, জেলার তালা উপজেলার খেশরা ইউনিয়নের নিকটবর্তী ও আশাশুনি উপজেলার দরগাহপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মাত্র ৪ কিলোমিটার দুরত্বে অবস্থিত। বেগম রোকেয়াকে নারী জাগরণের অগ্রদূত বলা হয়। কিন্তু তার জন্মেরও ৩০ বছর পূর্বে খুলনার নিভৃত গ্রামে নারী শিক্ষার প্রসার হয়েছিল। কিন্তু পরিতাপের বিষয় আমাদের প্রচার বিমুখতা এবং কর্তৃপক্ষের যথাযথ দৃষ্টির অভাবে ১৬৯ বছরের পুরাতন বিদ্যালয় ভাবনেই ক্লাস করছে শিক্ষার্থীরা।