ভোমরা ও বেনাপোলে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ ৮ দিন


প্রকাশিত : অক্টোবর ৪, ২০১৯ ||

অনলাইন ডেস্ক: বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা ও সাপ্তাহিক ছুটি মিলিয়ে ভোমরা ও বেনাপোল স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকছে আট দিন। তবে এ সময় বাংলাদেশে এরই মধ্যে যে সব পণ্য প্রবেশ করেছে সেগুলো ওঠানো-নামানো-খালাসসহ বন্দরের অন্যান্য কাজ চালু রয়েছে বলে জানিয়েছে কাস্টমস ও বন্দর কর্তৃপক্ষ। সরকারি ছুটি থাকলেও আন্তর্জাতিক এই চেকপোস্ট দিয়ে দুদেশেই যাত্রী পারাপার স্বাভাবিক থাকবে বলে জানান, সংশ্লিষ্ঠ দুই আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের কর্মকর্তা।
এ বছর শারদীয় দুর্গোৎসব ৪ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে শুরু হয়ে ৮ অক্টোবর বিজয় দশমীর মাধ্যমে সমাপ্তি ঘটবে। ধর্মীয় মতে-এবারে মা দুর্গা ঘটকে বা ঘোড়ায় চড়ে আসবেন এবং ঘোড়ায় চড়ে যাবেন। এটি সমাজে বিশৃঙ্খলা ও ছত্রভঙ্গতার ইঙ্গিত দেয়।
চলতি আট দিনের ছুটির হিসাব তুলে ধরে ভারতের পেট্রাপোল বন্দর ক্লিয়ারিং এজেন্ট স্টাফ ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী জানান, শারদীয় দুর্গাপুজা উপলক্ষে ৪ অক্টোবর থেকে ১০ অক্টোবর সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে ভারত সরকার। ১১ অক্টোবর শুক্রবার বাংলাদেশে সাপ্তাহিক ছুটি। তাই ১২ অক্টোবর সকাল থেকে আবারও আমদানি-রপ্তানি পুরোদমে চলবে।
বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টম কার্গো শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা নাসিদুল হক জানান, ওপারে সরকারি ছুটি শুরু হওয়ায় বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে দুই দেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ হয়ে গেছে।
বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক মামুন কবীর তরফদার, পেট্রাপোল -বেনাপোল বন্দরে টানা আট দিন আমদানি রপ্তানি বন্ধ থাকলে দুই দেশের স্থলবন্দর এলাকায় শত শত পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকা পড়ে। ভারত থেকে আমদানি পণ্যের ‘অধিকাংশই বাংলাদেশের গার্মেন্টস শিল্পের কাঁচামাল’ বলে জানান তিনি।