বজ্র ইন্দ্রের হাতে


প্রকাশিত : অক্টোবর ৫, ২০১৯ ||

 

সৌহার্দ সিরাজ

আকাশের দিকে তাকিয়ে থেকো না

আকাশের কোনো ক্ষমতা নেই

বজ্র ইন্দ্রের হাতে।

 

তামাশা দেখছে অন্ধকার

তারাগুলো না খেয়ে খেয়ে ধুকছে

জয়ধ্বনির বারান্দায় কে কি করবে!

সবারই বাজারের ব্যস্ততা।

 

নিজে ভালো থাকতে হলে অন্যকে নাচাও

ঠকাও এবং কাঁদাও

এই নীতিতে চলছে এখন বাজার,

বাজারে ফাঁকা ফাঁকা বিকেল,

বিকেলে পার্ক এবং বিশ্বাস ভীষণ একা।

 

সকালের ঘাড়ে চড়ে পার হচ্ছে দিন

অবশ্য দু নৌকোয় যাদের পা

তাদের কোনো চিন্তা নেই,

তারা শুধু কি আর ঢোল

সাথে এবার খোল-করতাল-কাশিও বাজাবে

নাচাবে অযোধ্যা মধ্যমগ্রাম।

 

ঈশ্বরী পাটনির খেয়া

ছেড়ে গেছে অনেক আগে

তাই এ পারের সমুদ্র উচু আর ওপারে

পাহাড় মালভূমি এক সমতলে,

নিজের ভালো কি মানুষ কখনও বুঝবে না?

 

আকাশের দিকে তাকিয়ে কী হবে!

আকাশ কিছু করবে না

বজ্র ইন্দ্রের হাতে।

 

বরং হাতে তুলে নাও বজ্র নিরোধ শপথ

হৃদয়ের রক্তক্ষরণ রেখে ধবল জোছনা

আর দূরত্বের সংগ্রামে যুগ পেরনো গল্পগুলো কাছে রাখো

থাকুক না বজ্র ইন্দ্রের হাতে।

 

মানুষই যে শ্রেষ্ঠ  সবার

সে অহংকার কেন পুষে রাখো না!

ইন্দ্রের চেয়ে মানুষ শক্তিমান,জানো না!

প্রেম আর বুদ্ধির পরম্পরায় গোটা পৃথিবী  মানুষের করতলে।

 

আকাশের দিকে কেন তাকিয়ে!

কেন ইন্দ্রের পথ চেয়ে!

ইন্দ্রের বজ্র মানুষের স্বার্থে নয়

নিজকে তৈরি করো।