শার্শা-বেনাপোলে ভ্রাম্যমান আদালতের এক ধাক্কায় পেয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১০টাকা


প্রকাশিত : অক্টোবর ৫, ২০১৯ ||

এম এ রহিম, বেনাপোল (যশোর): যশোরের শার্শা ও স্থলবন্দর বেনাপোলে পেয়াজের বাজারে অভিযান অব্যাহত রেখেছে ভ্রাম্যমান আদালত। ফলে সবজির বাজারগুলো বাড়ছে দেশী বিদেশী পেয়াজের সরবরাহ। কমতে শরু করেছে দাম। প্রতিকেজিতে কমেছে ১০টাকা। স্থানীয় বাজারগুলোতে প্রতি কেজি পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়। দাম আরো কমার আশা ক্রেতা বিক্রেতাদের।
ভারত সরকার গত ২৮সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশে পেয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দেয়। এর পর পরই হু হু করে বেড়ে যায় দাম। বেনাপোল শার্শা নাভারনসহ বিভিন্ন বাজারে এক কেজি পেয়াজের দাম বেড়ে দাড়ায় ১১০থেকে ১৩০টাকায়। বানিজ্য মন্ত্রণালয়ের টিমসহ স্থানীয় প্রশাসন বাজারগুলোতে কড়া মনিটরিং করায় কমতে শুরু করে দাম। গত তিন আগে ৯০ থেকে ১১০ টাকা টাকা দরে পেয়াজ বিক্রি হলেও শনিবার সকালে শার্শার নাভারন বেনাপোল ও বাগআচড়াবাজারে ভারতীয় পেয়াজ পাইকারী ৭০টাকা ও দেশী পেয়াজ ৭৫টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
শনিবার সকালে নাভারন বাজারে নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট খোরসেদ আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে রানা ট্রেডার্স ও হাবিব ট্রেডার্সকে ৪হাজার টাকা জরিমানা করেন। এ খবরে কিছুটা স্বস্তি ফেরে পেয়াজের বাজারে।