কয়রায় ছুরিকাঘাতে লঞ্চ কর্মচারী নিহত


প্রকাশিত : অক্টোবর ৭, ২০১৯ ||

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি: কয়রায় যাত্রীর ছুরিকাঘাতে আহত লঞ্চ কর্মচারী আইয়ুব আলীর মৃত্যু হয়েছে।  রবিবার ভোর ৫টার দিকে কয়রা উপজেলার ভান্ডারপোল লঞ্চঘাটে লঞ্চযাত্রী ও কর্মচারীদের মধ্যে তর্ক-বিতর্কের এক পর্যায়ে যাত্রীর ছুরিকাঘাতে লঞ্চ কর্মচারী আইয়ুব আলী মারাত্মক জখম হয়।

জানা যায়, গত ৫ অক্টোবর দিবাগত রাত ১০টায় খুলনা থেকে নীলডুমুর অভিমুখে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী লঞ্চ এমবি আদিবা খান ৬ অক্টোবর ভোর ৫টায় কয়রা উপজেলাধীন ভান্ডারপোল (লঞ্চ) ঘাটে পৌঁছালে  লঞ্চ কর্মচারী ও যাত্রীদের মধ্যে ভাড়া নিয়ে বিতর্কের একপর্যায়ে যাত্রীর ছুরিকাঘাতে লঞ্চের লস্কর আইয়ুব আলী (৫৫) মারাত্মক আহত হয়। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লে¬ক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। কিন্তু তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাৎক্ষণিক তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে ৬ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় খুমেক হাসপাতলে তিনি মারা যান। নিহত আইয়ুব আলী গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানার মহেশপুর গ্রামের রতন আলী খাঁর পুত্র। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ লঞ্চে কর্মচারী হিসেবে চাকরিরত ছিলেন।

ফিংড়ীতে মাদক বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং প্রতিরোধে উঠান বৈঠক

শেখ হেদায়েতুল ইসলাম: সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে মাদক, বাল্যবিবাহ, ও ইভটিজিং প্রতিরোধে উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সদর এমপি মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু সাঈদ, মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের সরদার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান বাবু, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুর রহমানসহ প্রমুখ।