এলাকার পরিবেশ নষ্ট করার প্রতিবাদ করায় মামলা দেওয়ার হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : অক্টোবর ৯, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: নড়াইলের হাফিজুর রহমান বিপ্লব কর্তৃক এলাকার পরিবেশ নষ্ট করার প্রতিবাদ করায় মিথ্যা মামলায় হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করনে সাতক্ষীরা শহরের রসুলপুর মেহেদীবাগ এলাকার মৃত লালুর ছেলে কাজী জিয়াউল ইসলাম।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রতিবেশি বাবুর আলী গাজীর ছোট কন্যা জোসনা খাতুনের সাথে পারিবারিকভাবে নড়াইল জেলার নড়াগাতি থানার কলাবাড়িয়া এলাকার মৃত হাশেম মোল্লার পুত্র লম্পট হাফিজুর রহমান বিপ্লবের সাথে বিবাহ হয়। বিবাহের পর জোসনার বড় বোন একাধিক বিবাহের নায়িকা ১ সন্তানের জননী হোসনেয়ারার সাথে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয় বিপ্লবের। একপর্যায়ে জোসনাকে তালাক দিয়ে হাফিজুর রহমান হোসনেয়ারারকে বিবাহ করে। এদিকে জোসনা বিপ্লবের তালাক প্রাপ্তা হলেও বিপ্লব প্রায়ই জোসনার বাড়িতে এসে উঠে। এতে জোসনা বাঁধা দিলে বিপ্লব জোসনাকে মারপিট করে। গত ২৭-৯-১৯ তারিখে বিপ্লব ও হোসনেয়ারা মিলে জোসনার বাড়িতে এসে তাকে মারপিট করে। ঘটনাশুনে আমরা কয়েকজন প্রতিবেশি ঘটনাস্থলে পৌছে বিপ্লবকে বলি তুমি তালাক দেওয়া স্ত্রীর বাড়িতে কেন আসো- এবং জোসনাকে মারপিট করতে বাধা দিলে বিপ্লব ক্ষিপ্ত হয়। বিশেষ করে আমাকে টার্গেট করে। পরে জানতে পারি বহু বিবাহের নায়িকা প্রতারক হোসেনয়ারা তার লম্পট স্বামীর কথা মত নিজের মাথায় ইটের আঘাত করে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।
তিনি বালেন ২৯-০৯-১৯ তারিখে দুপুরে বিপ্লব আবারো জোসনার বাড়িতে এসে বেধড়ক মারপিট করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে আমরা প্রতিবাদ করতে গেলে ওই বিপ্লব প্রকাশ্যে হুমকি প্রদর্শন করে বলে, ‘আমার বিষয়ে কেউ আসলে বাড়িতে মাদক দ্রব্য, অস্ত্রসহ বিভিন্ন অবৈধ মালামাল রেখে মামলা করবো। হোসনেয়ারা দীর্ঘদিন ঢাকায় ছিলো। সেখানে কি কাজ করতো কেউ জানে না। তবে মাত্র কয়েকবছরে লক্ষ লক্ষ টাকার মালিক হয়েছে সে। শেষ পর্যন্ত নিজের ছোট বোনের জীবনটা নষ্ট করে তার স্বামীকে কেড়ে নিয়ে বিবাহ করেছে। কিন্তু এতেও শান্ত না হয়ে এলাকার পরিবেশ নষ্ট করে যাচ্ছে। হোসনেয়ারা ও বিপ্লবের কারণে অত্র এলাকায় স্ত্রী সন্তান নিয়ে বসবাস করাটাও অসম্ভব হয়ে পড়েছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানেও একাধিক স্ত্রী রয়েছে এবং এলাকার বহু নারীদের কুপ্রস্তাব দিচ্ছে। আমরা অত্র এলাকার সাধারণ মানুষ তাদের কারণে দিশেহারা হয়ে পড়েছি।
তিনি হাফিজুর রহমানের হাত থেকে এবং এলাকার পরিবেশ রক্ষা করতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।