জনগণকে ভালোবাসতে শিখুন: জনপ্রতিনিধিদের রাষ্ট্রপতি


প্রকাশিত : অক্টোবর ১১, ২০১৯ ||

অনলাইন ডেস্ক:   রাজনৈতিক নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশ করে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ভাব ধরে চলবেন না। জনগণকে ভালোবাসতে শিখুন এবং দুর্নীতিমুক্ত থাকুন।

শুক্রবার নিজ উপজেলা মিঠামইনে মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক সরকারি ডিগ্রি কলেজ মাঠে এক সুধী সমাবেশে এ কথা বলেন রাষ্ট্রপতি।

সমাবেশে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ আরও বলেন, দেশ ও জাতিকে কিছু দিতে হলে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। লেখাপড়া শিখে প্রকৃত জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে নিজেকে প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার বিকল্প নেই। লেখাপড়ার সঙ্গে সৃজনশীল বিভিন্ন কাজেও শিক্ষার্থীদের মনোনিবেশ করতে হবে। তাহলেই প্রতিযোগিতার বর্তমান বিশ্বে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব।

স্মৃতিচারণ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, আমরা যখন হাওরের স্কুলে পড়েছি, তখন ৫-৭ জন ছাত্র ছিল। এখন স্কুলে ৪-৫শ’ শিক্ষার্থী। লেখাপাড়ায় হাওরের শিক্ষার্থীরা দিন দিন এগিয়ে যাচ্ছে। এলাকার শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে কঠোর পরিশ্রম ও অধ্যবসায়ের মাধ্যমে প্রকৃত মেধাবী হতে হবে। তাই তোমাদের মনোযোগী হয়ে পড়াশোনা করে ভালো ফল অর্জন করতে হবে।

সমাবেশে মিঠামইন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আছিয়া আলমের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন স্থানীয় সংসদ সদস্য রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ূয়া, প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সমীর কুমার বৈষ্ণব, জেলা প্রশাসক সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ, কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক নুরু, সদর ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শরীফ কামাল প্রমুখ।

হাওরের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ধরে রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, গত দুই দশকে হাওরে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। হাওরে অল-ওয়েদার রোড, সাবমার্জিবল রোড গড়ে ওঠায় হাওরের সৌন্দর্যে আলাদা মাত্রা যোগ হয়েছে। ফলে গত কয়েক বছর ধরে হাওরে পর্যটক ও দর্শনার্থীর সংখ্যা বেড়েই চলছে। তাই হাওরের সৌন্দর্য যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে হাওরবাসীকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। তিনি বলেন, দর্শনার্থী বেড়ে যাওয়ায় হাওরের বালিখলা, নিকলী বেড়িবাঁধ, অষ্টগ্রাম ব্রিজ, হাসানপুর ব্রিজ এলাকাকে পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তোলা হবে। তা ছাড়া হাওরে সেনানিবাস প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা এ সরকারের আমলে হাওরবাসী পাচ্ছে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের জন্য নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তার অক্লান্ত প্রচেষ্টায় বাংলাদেশে আজ স্বনির্ভর। জনগণের মাথাপিছু আয় বেড়েছে। কমেছে দারিদ্র্যের হার। অর্থনৈতিক বিভিন্ন সূচকে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের কাছে মডেল হয়ে দাঁড়িয়েছে।