মারপিটের মামলা তুলে নিতে বাদীপক্ষকে হুমকির অভিযোগ


প্রকাশিত : অক্টোবর ১৫, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: চাঁদার দাবিতে মারপিটের ঘটনায় মামলা করায় বাদীপক্ষকে মামলা তুলে নিতে হুমকি ধামকির অভিযোগ উঠেছে খাজরার রমজান বাহিনীর বিরুদ্ধে। এঘটনায় আইন শৃংঙ্খলা বাহিনীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী মামলার বাদী।

মামলার বাদী আশাশুনি উপজেলার চেউটিয়া এলাকার আব্দুল লতিফ সরদারের পুত্র মহাসিন সরদার জানান, আশাশুনি উপজেলার চিহ্নিত সন্ত্রাসী একাধিক মামলার আসামী সুন্দর আলী মোড়লের পুত্র রমজান আলী প্রায় আমার ভাই কবির উদ্দীনের কাছে চাঁদা দাবি করতো। তার দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দেওয়ায় গত ২০ আগস্ট ১৯ তারিখে রমজানের নেতৃত্বে তার বাহিনীর সদস্য কাপসন্ডা গ্রামের আমিনুদ্দীন সরদারের পুত্র খোকা, সাত্তার গাজী, মৃত চেউটিয়া গ্রামের মৃত আমজেদ সরদারের পুত্র নুরুল্লাহ সরদার, কাপসন্ডা গ্রামের সৈয়দ আলী মোড়লের পুত্র সাকিল মোড়ল, সাকিব মোড়ল, আমিরুল মোড়লের পুত্র রাকিব মোড়ল, অজিয়ার মোড়লের পুত্র আলামিন মোড়ল, আমিন উদ্দীন সরদারের পুত্র মিজান সরদার, সামাদ সরদারের পুত্র রাকিব সরদার, মৃত কালাম মোড়লের পুত্র আব্দুল আজিজ মোড়ল, আমিরুল মোড়লের পুত্র রায়হান মোড়ল, চেউটিয়া গ্রামের মহাতাব বিশ্বাসের ছেলে খোকন বিশ্বাস, দূর্গাপুর (খাজরা) গ্রামের মৃত শহর আলী গাজীর ছেলে মো. আফছার, কাপসন্ডা গ্রামের আজিজ মোড়লের পুত্র রসুল মোড়ল, পিরোজপুর গ্রামের খালেক মালীর পুত্র আমিনুর ইসলাম ৩/৪ টি মোটর সাইকেল যোগে চাইনিজ কুড়াল, বোমা ইত্যাদি নিয়ে ভাইয়ের ঘেরে অনধিকার প্রবেশ করে আমার ভাই কবিরের বুকে চাইনিজ কুড়াল ঠেকিয়ে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে এবং ২৪ ঘন্টার মধ্যে চাঁদা না দিলে বোমা মেরে উড়িয়ে দেব বলে হুমকি দেয়। পরদিন সকাল ৯টার দিকে আমার দুই ভাই কবির হোসেন ও মিলন একত্রে বাড়ী থেকে সাতক্ষীরার যাওয়ার পথে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী উক্ত রাম দা, চাইনিজ কুড়াল, লোহার রড, হাতুড়ি, শাবল, চাপাতী, হাত বোমা সহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আমার দুই ভাইসহ ৬জনকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এঘটনায় বাদী হয়ে আমি গত ২৩ আগস্ট ১৯ তারিখে আশাশুনি থানায় একটি মামলা দায়ের করি। যার নং ৩০। উক্ত মামলায় বিজ্ঞ আদালত থেকে ৪ থেকে ১৬ নং আসামীরা জমিন পায়। এছাড়া ১৫ অক্টোবর আদালত থেকে ১ থেকে ৩ নং আসামী জামিন নেওয়ার জন্য চেষ্টা চালালেও আদালত আগামী ২৩ অক্টোবর তাদের দিন ধার্য্য করেন আদালত। এদিকে জমিন পাওয়া আসামীদের সহযোগিতায় উল্লেখিত রমজান বাহিনীর সদস্যরা আমাকেসহ পরিবারের সদস্যদের খুন জখমের হুমকি ধামকি প্রদর্শন করে যাচ্ছে। এঘটনায় ভোক্তভোগী মামলার বাদী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।