বিরল রোগে আক্রান্ত আশাশুনির পিন্টু গাজী প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য চান


প্রকাশিত : অক্টোবর ১৮, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছেন না বিরল রোগে আক্রান্ত পিন্টু গাজী (৩০)। তিনি জেলার আশাশুনি উপজেলার শ্রীকলস গ্রামের মুজিবুর রহমান গাজী ও আয়শা খাতুনের ছেলে। পেশায় তিনি একজন ভ্যান চালক। মাত্র চার কাঠা ভিটেবাড়ি ছাড়া তার পিতার কোন সম্পদ নেই। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে পিন্টু সবার ছোট। বড় ভাই বেলাল গাজী অন্যের জমিতে শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন। পিন্টু গাজী বলেন, সংসারে পিতা-মাতার সাথে স্ত্রী রেহেনা খাতুন ও একমাত্র পুত্র আকাশ (৮) রয়েছেন। মায়ের গর্ভ থেকে তিনি বিরল রোগে আক্রান্ত। তার ঘাড় থেকে গলা পর্যন্ত কালো রঙের অতিরিক্ত চামড়া দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। গলা ঢেকে যাচ্ছে কালো পর্দা আকৃতির চামড়ায়। কালো রঙের চামড়ার উপর ছোট ছোট ফুসকা মারাত্মক যন্ত্রণাদায়ক। রোদে গেলেই তিনি যন্ত্রণায় ছটফট করেন। কাজ করতে পারেন না। টাকার অভাবে তিনি ভালো ডাক্তার দেখাতে পারেন না। অসহায় চির দুখী পিন্টু জানান, শিশুকারে এ কালো চামড়া যখন ছোট আকারের ছিলো তখন গ্রাম্য ডাক্তার ও কবিরাজ দেখিয়েছিলেন। পিতার টাকা-পয়সা না থাকায় ভালো ডাক্তার দেখিয়ে উন্নত চিকিৎসা করাতে পারেননি। এখন তিনি বাঁচতে চান। তার রোগের লক্ষণ দিনদিন প্রকট হচ্ছে। এজন্য তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মানবতার জননী শেখ হাসিনার সাহায্য কামনা করেছেন। উপরে আল্লাহ আর নিচে শেখ হাসিনা-ই তার ভরসা। সেই ভরসায় তিনি বেঁচে থাকতে চান। এজন্য তিনি সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেছেন।