কালিগঞ্জের কুশুলিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অধিবেশনে অনুপ্রবেশকারীদের হামলার অভিযোগ


প্রকাশিত : অক্টোবর ১৮, ২০১৯ ||

বিশেষ প্রতিনিধি: আসন্ন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কালিগঞ্জ উপজেলা শাখার সম্মেলনকে সামনে রেখে কুশুলিয়া ইউনিয়নে কাউন্সিল অধিবেশনে নব্য অনুপ্রবেশকারী কতিপয় ব্যক্তি কর্তৃক আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীদের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। তবে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের চ্যালেঞ্জের মুখে অনুপ্রবেশকারীরা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে বলে জানা যায়। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলা কুশুলিয়া ইউনিয়নের জিরণগাছা মোড় এলাকায়।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক তারালী ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হোসেন ছোট ও সদস্যসচীব সজল মুখার্জী জানান, আসন্ন উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে সামনে রেখে জেলা আওয়ামীলীগের নির্দেশে উপজেলার কুশুলিয়া ইউনিয়নের কাউন্সিলর নির্বাচন উপলক্ষে মতবিনিময় সভা চলছিল।
সভা চলাকালীন সময়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী সাঈদ মেহেদী ও অনুপ্রবেশকারী জামায়াত- শিবিরের চিহ্নিত নেতা সহিংশতা মামলার আসামি কুশুলিয়া ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের রজব গাজীর ছেলে শিবির নেতা ফারুক হোসেন, মথুরেশপুর ইউনিয়নের নিজদেবপুর গ্রামের জামায়াত নেতা তোহার মেম্বর, বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের কোমরপুর গ্রামের জামায়াত নেতা সিরাজুল মেম্বর, মহৎপুর গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে নাসির উদ্দিনসহ কতিপয় অনুপ্রবেশকারীদের সাথে নিয়ে সভায় হাজির হয়।
একপর্যায়ে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাঈদ মেহেদীর নেতৃত্বে ওই অনুপ্রবেশকারীরা দলীয় নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালাতে গেলে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করে। এরপর আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের চ্যাঞ্জের মুখে পরাজিত হয়ে নাশকতাকারীদের সভা স্থল দ্রুত ত্যাগ করে। পরবর্তীতে শান্তিপূর্ণভাবে সভা শেষ হয়। এব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদীর ব্যবহৃত (০১৭১১-২৫১১১১) নম্বরে ফোন দিলে তিনি রিসিভ করেননি।